• সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৫০ অপরাহ্ন |

সৈয়দপুরে উচ্ছেদ অভিযান: রেলওয়ের ৫ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

Mamlaসিসি নিউজ: সৈয়দপুরে ২৫.৫০ একর বাণিজ্যিক এলাকার মালিকানা নিয়ে সৈয়দপুর পৌরসভা ও বাংলাদেশ রেলওয়ের মধ্যে চলমান মামলায় উচ্চ আদালতে স্থিতিতাবদেশ থাকার পরেও রেলওয়ে কর্মকর্তারা নগদ দুই লাখ টাকা ঘুষ না পেয়ে এ এলাকার পিয়া ফার্মেসী নামের একটি ওষুধের দোকান ভাঙ্গচুর করে। আর এ অভিযোগে ওই ফার্মেসীর মালিক মোঃ সাইফুল ইসলাম পলাশ বাদি হয়ে গত ২৪ মার্চ নীলফামারী চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ওষুধের ক্ষতি পুরণ চেয়ে বৈধ্য দোকান হয়েও অবৈধ্য এ ভাঙ্গচুরের প্রতিবাদে বাংলাদেশ রেলওয়ের ছয় কর্মকর্তা ও কর্মচারির বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মহামান্য আদালত ওই দিনই মামলাটি আমলে নিয়ে এ সকল কর্মকর্তাকে আদলতে হাজির হতে সমন জারি করেন। কর্মকর্তরা হলেন মোঃ মোস্তাক আহমেদ (বিভাগিয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা বাংলাদেশ রেলওয়ে পাকশি, জেলা-পাবনা), মনোয়ারুল ইসলাম (ফিল্ড কানুন-গো ৭নং ও ৮নং কাচারি বাংলাদেশ রেলওয়ে পার্বতিপুর-দিনাজপুর), মোঃ মন্জরুল হক (আমিন ৭ নং কাচারি পার্বতিপুর), জিয়াউর রহমান (ফিল্ড কানুন-গো ১৩ও১৪ নং কাচারি),রাফিউল ইসলাম (সার্কেল অফিসার রাজস্ব বিভাগিয় ভুসম্পত্তি কর্মকর্তার দপ্তর বাংলাদেশ রেলওয়ে পাকশি), মোঃ রেজওয়ানুল হক (এ ই ও বিভাগিয় ভু সম্পত্তি কর্মকর্তার দপ্তর বাংলাদেশ রেলওয়ে)।
উল্লেখ্য সৈয়দপুর জেলা রেলওয়ের অবৈধ্য দখলদারদের উচ্ছেদ করতে গত ১৮ ও ১৯ মার্চ অভিযান চালায়। এ অভিযানে ষ্টেশন এলাকা, রেললাইনের দু-ধার স্কেবেটর দিয়ে গুড়িয়ে দেয় মামলায় উল্লিখিতরা। সমস্যা বাধে উচ্চ আদালতে রেলওয়ের সাথে সৈয়দপুর পৌরসভার চলমান মামলাকৃত এ শহরের ২৫.৫০ একর সম্পত্তির মধ্যে অবস্থিত পাইকারি ওষুধের দোকান পিয়া ফার্মেসী নিয়ে। উচ্চ আদালতের রায়ে এ জায়গায় স্থিতিবাদেশ থাকলেও রেল কর্মকতারা তা অগ্রাহ্য করেন। ঘুষের টাকা না পেয়ে দোকানটি গুড়িয়ে দেন। এতে ওই ফার্মেসীতে থাকা জীবন রক্ষাকারি ওষুধ ও অন্যন্য উপকরন মিলে প্রায় ৭০ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ