• রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ১১:৪৮ অপরাহ্ন |

দিনাজপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত

Pic-0001মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর : সারা দেশের ন্যায় দিনাজপুরেও মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত হয়েছে। বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় জেলাবাসি স্মরন করেছে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের। ২৬ মার্চ উপলক্ষে সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচী গ্রহণ করে। এসব কর্মসুচীর মধ্যে ছিল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ, আলোচনা সভা, রক্তদান কর্মসূচী, মসজিদে মসজিদে বিশেষ মুনাজাত ও অন্যান্য উপসনালয়ে প্রার্থনা, হাসপাতাল-কারাগার, ভবঘরে কেন্দ্রসমূহে ও শিশু সদনে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন ইত্যাদি।
২৬ মার্চ বৃহস্পতিবার দিবসের প্রথম প্রহরে রাত ১২.০১ মিনিটে দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থিত শহীদ স্মতিস্তম্ভে পুস্পাঞ্জলি অর্পণের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রাথমিক ও গণ শিক্ষামন্ত্রী এবং জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. আলহাজ্ব মো. মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি ও জেলা আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. আজিজুল ইমাম চৌধুরী। পরে জাতীয় সংসদের হুইপ চেহেলগাজী মাজারে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
এর পর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থিত শহীদ স্মতিস্তম্ভে পুস্পাঞ্জলি অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক আহমেদ শামিম আল রাজী ও পুলিশ সুপার মোঃ রুহুল আমিন। এর পর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা পরিষদের প্রশাসক মোঃ আজিজুল ইমাম চৌধুরী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মোঃ সিদ্দিক গজনবী’র নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দ, এর পর শদ্ধা নিবেদন করেন দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম ও পৌরসভা কাউন্সিলরবৃন্দ, জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ, জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মুকুর নেতৃত্বে বিএনপি এবং অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মতিউর রহমান’র নেতৃত্বে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ইউনিয়ন (একাংশের) সভাপতি ওয়াহেদুল আলম আর্টিষ্ট এর নেতৃত্বে ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ, অপর প্রেসক্লাবের সভাপতি চিত্ত ঘোষের নেতৃত্বে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, মহিলালীগ। এ ছাড়া শহীদদের প্রতি শদ্ধা নিবেদন করেন জেলা আইনজীবী সমিতি, দিনাজপুর সিভিল সার্জন, দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের নেতৃত্বে কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, জেলা জাতীয় পার্টি,HSTU-26-03-2015 Pix(1) জেলা ওয়ার্কার্স পার্টি, জেলা জাসদ, কমিউনিষ্ট পার্টি, জেলা জাগপা, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি ন্যাপ, উদীচি, নবরুপী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, দিগন্ত শিল্পীগোষ্ঠি, নাগরিক ফোরাম, জেলা ক্রীড়া সংস্থা, ইকবাল স্কুল, দিনাজপুর মিউনিসিপ্যাল হাই স্কুল (বাংলা স্কুল), জাতীয় মহিলা সংস্থা, পল্লী শ্রী বালুবাড়ী, নির্মাণ মিস্ত্রি শ্রমিক ইউনিয়ন, বেকারী মালিক সমিতিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন। চেহেলগাজী মাজারে বিভিন্ন সংগঠন পুস্পাঞ্জলি অর্পনের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি শদ্ধা নিবেদন করেন। এছাড়া জেলা সদরসহ ১৩ উপজেলায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয়েছে।
দিনাজপুর জেলা প্রশাসন ঃ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে ২৬ মার্চ গোর-এ-শহীদ বড়মাঠে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। কুচকাওয়াজে অংশগ্রহণ করে দিনাজপুর জিলা স্কুল, সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পুলিশ লাইন উচ্চ বিদ্যালয়, দিনাজপুর মিউনিসিপ্যাল হাই স্কুল (বাংলা স্কুল), জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়, ইকবাল উচ্চ বিদ্যালয়, দিনাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়, সারদেস্বরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তফি উদ্দীন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়, কলেজিয়েট স্কুল এন্ড কলেজ, সেন্ট ফিলিপস্ উচ্চ বিদ্যালয়, মহারাজা উচ্চ বিদ্যালয়সহ শহরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী ও শিশু-কিশোর সংগঠনের সদস্যরা। কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক আহমেদ শামিম আল রাজী ও পুলিশ সুপার মোঃ রুহুল আমিন। কুচকাওয়াজে ছাত্র-ছাত্রীরা বিভিন্ন শারিরীক কসরত প্রদর্শন করে। জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ অন্যান্য সধীবৃন্দ কুচকাওয়াজ উপভোগ করেন।
জেলা আওয়ামী লীগ ঃ মহান স্বাধীনতা দিব উপলক্ষে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিমের নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে শহরে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. ফরিদুল ইসলাম, মো. বজলুল হক, আলাউদ্দিন, এ্যাড. আব্দুল লতিফ, আওয়ামীল নেতা আলতাফুজ্জামান মিতা, কামরুল হুদা হেলাল, তৈয়ব উদ্দীন চৌধুরী, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আনোয়ারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক এস এম খালেকুজ্জামান রাজু, কোতয়ালী আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চনসহ আওয়ামী লীগ ও সকল অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের সর্বস্তরের নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন।
হাবিপ্রবি ঃ যথাযোগ্য মর্যাদা ও দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে বৃহস্পতিবার হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিBirol Pic.দ্যালয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৫ পালিত হয়েছে। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে একাডেমিক ভবনের সম্মুখে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। সকাল সোয়া ৮টায় হাবিপ্রবি’র ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিনের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং ছাত্র-ছাত্রীেেদর নিয়ে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। সকাল সাড়ে ৮ টায় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিন শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে হাবিপ্রবি’র কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। ক্রমান্বয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন শিক্ষক সমিতি, প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম, সাদা দল, প্রগতিশীল কর্মকর্তা পরিষদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, হলসমূহ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (হাবিপ্রবি শাখা), হাবিপ্রবি হলসমূহের ছাত্রলীগ শাখা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট (হাবিপ্রবি শাখা), প্রগতিশীল কর্মচারী পরিষদ, হাবিপ্রবি স্কুলসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠন। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে ভাইস-চ্যান্সেলরের ২৬ মার্চের বাণী পাঠ ও বিতরণ করা হয়।
এর পর দিবসের তাৎপর্যের উপর ভিত্তি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে প্রক্টর প্রফেসর ড. এ.টি.এম শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিন প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কৃষি অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মো. আনিস খান, পোষ্ট গ্র্যাজুয়েট অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. বলরাম রায়, মেডিসিন সার্জারি অ্যান্ড অবস্টেটিক্স বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. মো. ফজলুল হক, কৃষি বনায়ন ও পরিবেশ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. আবু হানিফ, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক তানজিনা সুলতানা, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মাইনউদ্দিন আহমেদ, সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মো. সাইফউদ্দিন, প্রগতিশীল কর্মকর্তা পরিষদের সভাপতি কৃষিবিদ মো. ফেরদৌস আলম, সাধারন সম্পাদক আনম ইমতিয়াজ হোসেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার শেখ রাসেল হলের সভাপতি মো. রুহুল কুদ্দুস জোহা, শেখ রাসেল সম্প্রসারণ হলের সভাপতি পলাশ চন্দ্র রায়, কার্যকরী সদস্য মো. নাহিদ আহমেদ নয়ন, প্রগতিশীল কর্মচারী পরিষদের সাধারন সম্পাদক পারভেজ হোসেন প্রমূখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. সাদেকুর রহমান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর মো. রুহুল আমিন বলেন, আমরা স্বাধীনতার ৪৪ বছর পেরিয়েছি এটা আমাদের পরম আনন্দের। এ সময়ে আমাদের অনেক অর্জন হয়েছে। আমাদের দারিদ্র পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে, উৎপাদনের ভিত্তি জোরালো হয়েছে, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা এসেছে, মা ও শিশু মৃত্যুর হার কমেছে, স্বাস্থ্য সেবার বিস্তার ঘটেছে, সার্বিকভাবে শিক্ষার উন্নতি হয়েছে। সর্বোপরি আমরা বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত আলোকিত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে আজ একতাবদ্ধ।
পরে শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। খেলাধুলা শেষে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিন বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। বাদ যোহর শহীদদের বিদেহী আতœার মাগফেরাত কমনা করে কেন্দ্রীয় মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন দিনব্যাপী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।
চেরাডা্গৃী উচ্চ বিদ্যালয় ঃ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিসব উপলক্ষে চেরাডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান মো. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান এ্যাড. মোফাজ্জল হোসেন দুলাল। শিক্ষকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. শহিদুল ইসলাম, মো. আনোয়ার হোসেন প্রমূখ। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. আব্দুল্লাহ আল মানিক ও মো. জমশেদ আলী। আলোচনা সভা শেষে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এ্যাড. মোফাজ্জল হোসেন দুলাল অন্যান্য অতিথি ও শিক্ষকদের সাথে নিয়ে বিজয়ী ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করেন।
বিরল উপজেলা ঃ বিরলে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৫ উদযাপিত হয়েছে। কর্মসূচীর মধ্যে প্রত্যুষে ৩১ বার তপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের সূচনা, সূর্যদোয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে ৭ টায় স্মৃতিসৌধে পুষ্প স্তবক অর্পন, সাড়ে ৮টায় আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও পুলিশ, আনসার, মুক্তিযোদ্ধা, বিএনসিসি, গ্রাম পুলিশ, স্কাউট, গার্লস গাইড, বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয়, মাদ্রাসা ছাত্র-ছাত্রীদের সমাবেশ, কুজকাওয়াজ ও ডিসপ্লে প্রদর্শন, সাড়ে ১০ টায় উপজেলা প্রশাসন বনাম সূধী একাদশ প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, সাড়ে ১১টায় ক্রীড়া অনুষ্ঠান, ১২টায় বীরমুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, দুপুরে হাসপাতাল ও এতিমখানায় উন্নতমানের খাবার পরিবেশন, বাদ যোহর সুবিধা জনক সময়ে মহান বীরশহীদদের পবিত্র আত্মার মাগফিরাত এবং জাতীয় শান্তি ও অগ্রগতি কামনা করে মুনাজাত, সন্ধ্যায় উপজেলা পরিষদ মুক্ত মঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।
Pic-0002কর্মসূচীতে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আ.ন.ম. বজলুর রশীদ, ভাইস চেয়ারম্যান ফিরোজা বেগম সোনা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল খায়রুম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দ মাহমুদ হাসান, বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল হাই সরকার, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার আব্দুল ছালেক, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জুলফিকার আলী শাহ, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. এএসএম জাহিদুল ইসলাম, কৃষি অফিসার কৃষিবীদ আশরাফুল আলম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব সবুজার সিদ্দিক সাগর, আব্দুল লতিফ, অধ্যাপক রিয়াজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক একেএম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল আজাদ মনি, আল্লামা আজাদ ইকবাল লাবু, এপিপি এ্যাড. রবিউল ইসলাম রবিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, সেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ, সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ, প্রেস ক্লাব এর সাংবাদিকবৃন্দ, পুলিশ, আনসার, মুক্তিযোদ্ধা, বিএনসিসি, গ্রাম পুলিশ, স্কাউট, গার্লস গাইড, বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয়, মাদ্রাসা ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও “মায়ের ভাষার জন্য ৪ লাখ শব্দ যোগ করব আমরা সবাই মিলে” স্লোগানে বিরল উপজেলা সায়েন্স একাডেমী বিরল পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে পৃথক এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ