• রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২:১৫ পূর্বাহ্ন |

ব্রিটিশ গণমাধ্যমে ইংলিশদের মুণ্ডুপাত !

Ingland-1425974530খেলাধুলা ডেস্ক : ১৯৭৫ সালে বিশ্বকাপের শুরু থেকে প্রতিটা আসরেই খেলছে ইংল্যান্ড। তিনবার টুর্নামেন্টের ফাইনালও খেলেছে ক্রিকেটের জনকরা। কিন্তু দুর্ভাগ্য, একবারও বিশ্বকাপের শিরোপা ঘরে তুলতে পারেনি ইংলিশরা।

তিনবার বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকেও বিদায় নেওয়ার লজ্জা পেতে হয়েছে ইংল্যান্ডকে। যার সবশেষ লজ্জাটি এবারের বিশ্বকাপেই পেয়েছে ইংলিশরা। সোমবার বাংলাদেশের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে ইংল্যান্ড। ইতিমধ্যে বাড়ি ফেরার টিকিটও হয়তো কাটতে হয়েছে তাদের!

এর আগে ১৯৯৯ ও ২০০৩ সালের বিশ্বকাপেও প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছিল ইংল্যান্ড। তবে এবারের বিদায়টি বেশি লজ্জার! কারণ গতকাল বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতলে কোয়ার্টার ফাইনালের আশা বেঁচে থাকত ইংলিশদের। কিন্তু হেরে যাওয়ায় এক ম্যাচ বাকি থাকতেই বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেছে ইয়ান মরগানের দলের। আর তাই তো মরগানদের মুণ্ডুপাত চলছে ব্রিটিশ গণমাধ্যমগুলোয়।

বিশ্বকাপ থেকে ইংলিশদের লজ্জাজনক বিদায় নিয়ে বিবিসি লিখেছে, ‘এর আগেও (১৯৯৯, ২০০৩) বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু এবারের মতো বাজে পারফরমেন্স আর তারা দেখায়নি। এবার তারা কোনো টেস্ট খেলুড়ে দলকেই হারাতে পারেনি।’

আরেক ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ান মনে করছে, ইংল্যান্ডকে ‘বিধ্বস্ত’ করেছে বাংলাদেশ। বাঁচা-মরার ম্যাচে টাইগারদের সামনে ইংলিশরা প্রতিরোধই গড়তে পারেনি।

ইংল্যান্ডের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল ইংল্যান্ডের পরাজয়কে অসহায় আত্মসমর্পণ ও চরম লজ্জাজনক বলে উল্লেখ করেছে। পত্রিকাটি লিখেছে, ‘ক্রিকেটে হাসির খোরাক জোগানোর মতো অস্বস্তিকর অবস্থা থেকে অবশেষে মুক্তি; বিশ্বকাপে বাংলাদেশের কাছে হেরে বিদায় নিয়ে ইংল্যান্ডের চূড়ান্ত লজ্জা।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ইংল্যান্ডের সমালোচনা করেছেন দেশটির প্রাক্তন অধিনায়করা। প্রাক্তন ইংলিশ অধিনায়ক ইয়ান বোথাম টিম ম্যানেজমেন্টের সমালোচনা করে টুইট করেন, ‘সাবাশ বাংলাদেশ! মর্মান্তিক ইংল্যান্ড! আমরা কখন দলের জন্য এমন নির্বাচক নিতে পারব যারা ওয়ানডের জন্য যোগ্য একটা দল নির্বাচন করতে পারবে? বদলের সময় এসে গেছে!!’

ইংল্যান্ডের আরেক প্রাক্তন অধিনায়ক কেভিন পিটারসন টুইট করেন, ‘আমি এটা বিশ্বাসই করতে পারছি না। আমি পারছি না। কিন্তু সাবাস বাংলাদেশ। এটা তোমাদের প্রাপ্য।’

এদিকে আগামী বিশ্বকাপের আসর বসছে ইংল্যান্ডেই। সবশেষ ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপের আসর বসেছিল ১৯৯৯ সালে। আর সেবারই প্রথমবার বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল ইংলিশদের। ১৯১৯ সালে আবার সেরকম কিছু হয় কি না, কে জানে!


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ