• শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৯:১৭ অপরাহ্ন |

সৈয়দপুর পৌর মেয়রসহ ৫০ জনের নামে আদালতে রেলের মামলা

Mamlaসিসি নিউজ: আদালতের আদেশ অমান্য করায় সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়রসহ ৫০ জনের নামে মিস ভায়োলেশন মামলা হয়েছে। বাংলাদেশ রেলওয়ে প্রশাসনের পক্ষে জেনারেল ম্যানেজার (পশ্চিম) বাদী হয়ে নীলফামারী জেলা যুগ্ম জজ আদালতে গত ২ এপ্রিল ২২ জন এবং ১৯ মার্চ ২৮ জনের নামে পৃথক পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন।
১৯ মার্চ দায়েরকৃত মামলা সূত্র মতে, সৈয়দপুর কয়া, নিয়ামতপুর ও সৈয়দপুর মৌজার ২৫.৫০ একর জমিতে আদালতে আমলী নিষেধাজ্ঞার আদেশ বিবাদীগন ইচ্ছাকৃত লঙ্ঘন করেছে। সূত্র মতে, বাংলাদেশ রেলওয়ে সিদ্ধান্ত মোতাবেক সৈয়দপুর পৌরসভাকে শর্ত সাপেক্ষে সাত বছরের জন্য ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব প্রদান করে। কিন্তু উক্ত মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পরও পূণঃরায় চুক্তিপত্র নবায়ন করেন নাই পৌর কর্তৃপক্ষ। ওই সূত্রটি জানায়, রেলওয়ের ওই জমিতে নিজস্ব ৩৫০টি আধা-পাকা দোকানঘর ও অবশিষ্ট ফাঁকা স্থানে অপারেশনাল এরিয়া ইঞ্জিনিয়ারিং প্লট রহিয়াছে। নির্মিত ওইসব দোকানঘর রেল কর্তৃপক্ষ স্থানীয় ব্যবসায়ীগনদের মাঝে শর্ত সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করে। কিন্তু পৌর কর্তৃপক্ষ শর্ত ভঙ্গ করে ওইসব দোকানের ভাড়া আদায় করছে। অপরদিকে রেলওয়ে থেকে লাইসেন্সপ্রাপ্ত ব্যবসায়ীগন শর্ত ভঙ্গ করে পৌরসভা থেকে নকশা অনুমোদন নিয়ে রেলের জায়গায় ভবন নির্মাণ করছে। ইতিপূর্বে এ বিষয়ে রেল কর্তৃপক্ষ জেলা যুগ্ম জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন (মূল মোকদ্দমা অন্য-১৭/০৯)। আদালতের বিচারক ১১/০৫/২০১০ তারিখে উক্ত জমির ওপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ প্রদান করেন। আদেশে বলা হয়েছে, মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত পৌর কর্তৃপক্ষ রেলওয়ে জমিতে পাকা ঘর নির্মাণ কাজের জন্য কোন লাইসেন্স বা বরাদ্দগ্রহীতাগণের বরাদ্দকৃত জমিতে পাকা ভবন বা অবকাঠামো নির্মাণের অনুমতি প্রদান করতে পারবেন না।
সূত্র মতে, আদালতের নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে পৌর কর্তৃপক্ষ উচ্চ আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। আদালতের বিচারক ১/১২/২০১১ তারিখে পৌর কর্তৃপক্ষের আপিল মামলাটি নিষ্পত্তি করে জেলা যুগ্ন জজ আদালতের রায় বহাল রাখে। আদালতের এ নির্দেশ অমান্য করে মামলার বিবাদীগণ চলতি বছরের ১০ ফেব্রুয়ারী একযোগে বহুতল ভবন নির্মান শুরু করলে রেল কর্তৃপক্ষ তাদের নিযুক্তিয় কৌসুলী দ্বারা নির্মাণ কাজ বন্ধের জন্য লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেন। এরপরেও বিবাদীগণ নির্মাণ কাজ বন্ধ না করিলে রেল কর্তৃপক্ষ ফিল্ড কানুনগো (বিজি) দ্বারা মৌখিক ভাবে বিবাদীগন ছাড়াও যারা নির্মাণের প্রস্তুতি গ্রহণ করছে তাদেরকে অবহিত করেন। এরপরেও নির্মাণ কাজ অব্যাহত থাকলে বাদী আদালতে মিস ভায়োলেশন মামলা দায়ের করেন।
মামলার বিবাদীরা হলেন (১) মেয়র, সৈয়দপুর পৌরসভা (২) হাজী মাহবুব আলম, প্রো: হোটেল সৌদিয়া (৩) হাজী আব্দুস সালাম, প্রো: আলহাজ্ব এন্ড সন্স (৪) রামু প্রসাদ, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড (৫) মো. নূর হুদা, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড (৬) আসলাম পারভেজ, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড (৭) মো: শফিক, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড (৮) মো. মমতাজ উদ্দিন, শহীদ শামসুল হক রোড ( ৯) মাকসুদ আলম, শহীদ শামসুল হক রোড (১০) মো. আসলাম নোমানী, প্রো: আসলাম পলিথিন স্টোর (১১) রাজ কুমার, নয়াবাজার (১২) মানস কুমার দাস, পাসারী দোকান, মদিনা মোড় (১৩) দোলন চন্দ্র কান্ত, শহীদ শামসুল হক রোড (১৪) একরামূল হক, প্রো: নিউ থ্যাংকস ক্লথ স্টোর (১৫) হাজী জাবেদ আলী, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড (১৬) বেচন, পিতা মৃত ইউনুস, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড (১৭) হাজী মনসুর আলী সরকার, মহিলা কলেজ রোড, মুন্সীপাড়া (১৮) মো. আতিকুল ইসলাম, মহিলা কলেজ রোড, মুন্সীপাড়া (১৯) নিয়াজ আহম্মেদ, প্রো: সোহাগ সাজ ঘর (২০) বাদশা মিঞা, প্রো: মেসার্স বাদশা ফল ভান্ডার (২১) হরিলাল শাহা, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড (২২) মো. শওকত আলী, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড (২৩) মো. আমিনুল হক, সভাপতি, সৈয়দপুর প্রেস ক্লাব (২৪) সাকির হোসেন বাদল, সম্পাদক, সৈয়দপুর প্রেস ক্লাব (২৫) আলতাফ হোসেন, প্রো: বিউটি সাইকেল স্টোর (২৬) আফজাল হোসেন, প্রো: মেসার্স আফজাল এন্ড ব্রাদার্স (২৭) হাজী মো. শের আলী, শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড ও (২৮) হাজী মো. তসলিম, প্রো: তসলিম ট্রেডার্স।
নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) উক্ত আদালতে বাদী একই অভিযোগে পৌর মেয়রকে প্রধান বিবাদী করে ২২ জনের নামে আরও একটি মামলা দায়ের করেছেন।

Saidpur municipal mayor in 50 court cases Railway
CC News: Saidpur municipality mayor 50 people had ignored a court order has been filed in the name of Miss violation. Bangladesh Railway Administration’s General Manager (West) filed joint Nilphamari district court on April twenty-two and the last two on March 19, filed two separate groups of 50 people.
According to the lawsuit filed on March 19, Saidpur Koya, Niamatpur and Saidpur village 25.50 acres bibadigana intentionally violated a court order to ban Cognizance. According to sources, according to the Bangladesh Railway Saidpur issuing municipality provides for seven years, subject to conditions. But even after the expiration of the municipal authorities did not renew the agreement punahraya. According to the sources, the field of railways, 350 semi-ripe dokanaghara own operational area and the remaining empty spaces are engineering plots. Dokanaghara those built between the railway authorities, subject to the conditions of local byabasayiganadera licenses. But those who break the conditions of the municipal authorities to rent the store. On the other hand, in violation of the conditions of railway licensed byabasayigana municipality with the approval of the railway in the design of buildings. The railway authorities before the district court filed a lawsuit joint (the cases of -17 / 09). 11/05/2010 Judge permanent ban on the land, on the order. According to the order, the case is not settled until the municipal authorities in the field of railway construction of terraced houses on the land allotted to any license or baraddagrahitaganera terraced building infrastructure to allow or not.
According to sources, the court filed a suit in the High Court sanctions the municipal authorities. On the municipal authority to settle the case to the appeals court 1122011 Joint District Judge’s Court upheld the judgment. The defendants disobeyed court on February 10 this year, at the start of the construction of high-rise buildings, construction of the railway authorities appointed by kausuli pay for closing the Legal Notice. Defendants still stop the construction work unless Rail Authority Field Kanungo (BG) by the addition of oral bibadigana who informed them of preparing to build. If construction work is still continuing violation has been filed by the plaintiff, the court missed.
Defendants in the case (1) Mayor, Saidpur municipalities (2) Haji Mahboob Alam, Pro: Hotel Saudia (3) Haji Abdus Salam, Pro: Mr. & Sons (4) Ramu Prasad, Shahid said. Jikarula Haq Road (5) M. Noor Huda, Shahid said. Jikarula Haq Road (6), Aslam Pervez, Shahid said. Jikarula Haq Road (7) Mohammad Shafiq, Shahid said. Jikarula Haq Road (8) M. Momtaz Uddin, Shamsul Haq Shaheed Road (9) Maqsood Alam, Shamsul Haq Shaheed Road (10) said. Aslam Nomani, Pro: Aslam polythene Store (11) Raj Kumar, Naya bazaar (12) Manas Kumar Das, pasari store, Medina-offs (13) oscillation Chandra Kant, Shamsul Haq Shaheed Road (14) ekaramula Haq, Pro: New Thanks Parts Store (15) Haji Javed Ali, Shahid said. Jikarula Haq Road (16) ticking, father dead Younis, Shahid said. Jikarula Haq Road (17) Haji Mansoor Ali government, College Road, munsipara (18) said. Islam, Women’s College Road, munsipara (19), Niaz Ahmed, Pro: Sohag splendid houses (20) Badshah Mia, Pro: Mrs King F repositories (21) Harilal Shah, Shahid said. Jikarula Haq Road (22) M. Shawkat Ali, Shahid said. Jikarula Haq Road (23) M. Mr. Haque, Chairman, Saidpur Press Club (24) Shakir Hussain Badal, Editor, Saidpur Press Club (25), Altaf Hussain, Pro Beauty Bike Store (26) Afzal Hossain, Pro: M Afzal and Brothers (27) Haji Md. Sher Ali, Shahid said. Jikarula Haq Road, and (28) Haji Md. Taslim, Pro: Taslim traders.
Reliable sources, on Thursday (April), the plaintiff in the court in the same case as the municipal mayor of the defendants also filed a case with the merchant.


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ