• বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৩৩ অপরাহ্ন |

চুয়াডাঙ্গায় পুলিশ ক্যাম্পে হামলা: গুলিবিদ্ধ ৫

Chuadanga-Pics-BM01-e1428077822879চুয়াডাঙ্গা: জেলার দামুড়হুদা উপজেলার দলকা লক্ষীপুর পুলিশ ক্যাম্পে স্থানীয় গ্রামবাসী হামলা চালিয়েছে। এসময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে পাঁচজন গুলিবিদ্ধ ও দুই পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছে সাতজন।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে দলকা লক্ষ্মীপুরে পুলিশ ও গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়।

রাত সাড়ে ৮টার দিকে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আসে। বর্তমানে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

দামুড়হুদা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জামিরুল ইসলাম দাবি করেছেন, গুলিবিদ্ধ ৫ জনই ছাত্রলীগ কর্মী।

ছাত্রলীগ নেতা ও গ্রামবাসীর অভিযোগ, বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ওয়াজ মাহফিলের জন্য টাকা তুলছিল স্থানীয় তারাচাঁদের ছেলে মিজানুর (১৮), মাকের আলীর ছেলে আজবুল (১৬), জাহাবক্সের ছেলে রিফাত (১৬), কাতু সরদারের ছেলে সাজিদ (১৫) ও রহিম সরদারের ছেলে হুমায়ন (১৬)। এ সময় দলকা লক্ষীপুর পুলিশ ক্যাম্পের সদস্যরা তাদের ধরে ক্যাম্পে নিয়ে যায়।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের অভিযোগ, ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে তাদের মারধর করা হয়েছে।

এদিকে, মারধর করার খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে সন্ধ্যা ৭টার দিকে গ্রামবাসী একত্রিত হয়ে ওই পুলিশ ক্যাম্পে হামলা চালায়। এতে পুলিশ-গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ তিন রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। এতে ৫ জন গুলিবিদ্ধ হয় ।
দামুরহুদা উপজেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত ডা. রাজিবুল ইসলাম জানান, আহত সবার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।

এ ব্যাপারে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান ও দামুড়হুদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামানের সঙ্গে কয়েকদফা যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদের কেউই ফোন ধরেননি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ