• বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন |

মূত্রাশয়ের সংক্রমণের ব্যাপারে সাবধান হোন

Healthস্বাস্থ্য ডেস্ক: আমাদের দেশের অধিকাংশ নারী জীবনে অন্তত একবার হলেও মূত্রাশয়ের সংক্রমণে আক্রান্ত হন। এই সংক্রমণ প্রধানত ব্যাকটেরিয়ার কারণে হয়ে থাকে। বিশেষ করে গরমের সময়টাতে ঘাম, ধুলাবালি আর জীবানুর আক্রমণ বেশি থাকায় সংক্রমণটি বেশি হয়। একবার এই সংক্রমণ হরে, পরবর্তীতে আবার হওয়ার আশঙ্কা থাকে। জরিপে দেখা গেছে, মূত্রাশয়ের সংক্রমণের ঝুঁকি পুরুষদের তুলনায় নারীদেরই বেশি। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাচ্ছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অর্থোসার্জারি বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার ডাঃ বিশ্বজিৎ দাশ।
তবে, মূত্রাশয়ে সংক্রমণ যেকোনো বয়সের নারী, পুরুষের হতে পারে। এই সমস্যায় মানুষ সংকোচ করেন। অনেকে আবার এ বিষয়ে সরাসরি কারোর সঙ্গে কথা বলতে চান না। মূত্রাশয়ের এই ‘ইনফেকশন’ বা সংক্রমণে জ্বর, মূত্রনালীতে ব্যথা বা প্রস্রাবের সময় জ্বালা পোড়াও থাকতে পারে। বেশিদিন ধরে সমস্যা বয়ে বেড়ালে জটিল অসুখে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায় অনেক বেশি।
জীবাণুমুক্ত মূত্রনালি ও মূত্রাশয় ব্যাকটেরিয়ায় সংক্রমিত হলে মূত্রাশয়ে জ্বালা ও ব্যথা হয়। জীবাণু সাধারণত পাকস্থলী ও অন্ত্রের নীচের অংশে থাকে, যা যৌনমিলনের সময় ছড়িয়ে পড়তে পারে। জীবাণু মূত্রনালি দিয়ে মূত্রাশয়ে ঢুকলে সাধারণত প্রস্রাবের সঙ্গে বের হয়ে যায়। তবে জীবাণু বংশবিস্তার শুরু করলে মূত্রাশয়ে সংক্রমণ ঘটে। বিশেষজ্ঞের মতে, সহবাসের পর জীবাণু ধুয়ে ফেলার জন্য প্রস্রাব করা এবং পরিষ্কার করা উচিৎ।
মূত্রনালির সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে দরকার শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। তাছাড়া সুস্থ ব্লাডারের জন্য প্রয়োজন বিশেষ ব্যায়াম। এছাড়া ব্লাডার বা মূত্রাশয়কে ঠিক মতো পরিষ্কারের জন্য দিনে কমপক্ষে ২ থেকে ৩ লিটার পানি পান প্রয়োজন। ভিটামিন সি, জিংক এবং সেলেনিউম ব্লাডারের রোগের প্রতিরোধ করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। এক্ষেত্রে বেদানায় থাকা উপাদানও ‘ইউরেনারি ইনফেকশন’ হওয়া থেকে দূরে রাখে। খাবারে সরিষার তেলের ব্যবহার মূত্রাশয়ে সক্রমণের ঝুঁকি অনেক কমিয়ে দেয়। যারা ডায়াবেটিস, ব্যথানাশক ওষুধ বেশি সেবন করেন, তাঁদের মূত্রাশয়ের সংক্রমণের ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়।
এই সংক্রমণ থেকে বাঁচার মোক্ষম উপায় হল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অবলম্বন করা। এক্ষেত্রে প্রতিবার অন্তর্বাস ব্যাবহারের পর তা পরিষ্কার করতে হবে। তীব্র গরমে পরনের কাপড় সুতি হওয়া উত্তম। পলিয়েস্টার কাপড়ের তৈরি অন্তর্বাস সহজেই গোপন জায়গায় ছত্রাক ও জীবাণু ছড়াতে পারে। তাছাড়া প্রস্রাবের বেগ হওয়া সত্ত্বেও দীর্ঘ সময় প্রস্রাব ধরে রাখা এ রোগ হওয়ার আরো একটি কারণ, তাই গোপন হলেও আর চেপে রাখা নয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ