• সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৮ অপরাহ্ন |

হাবিপ্রবি’র দূর্নীতিবাজ উপাচার্যকে শাস্তির দাবী ছাত্রলীগের

HSTU Student Press Conf. Newsদিনাজপুর প্রতিনিধি : অবিলম্বে দূর্নীতিবাজ, টেন্ডারবাজ উপাচার্য ও তার পোষা গুন্ডাবাহিনীকে শাস্তির আওতায় এনে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ এবং ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের স্বাভাবিক শিক্ষা জীবন ফিরিয়ে আনার দাবী জানিয়েছেন ছাত্রলীগ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) শাখার সাধারণ সম্পাদক অরুন কান্তি রায় সিটন।
শনিবার (৪ এপ্রিল) দুপুরে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবী জানান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখা আজ এক ক্রান্তিকাল পার করছে। যার প্রধান অন্তরায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপাচার্য এবং একটি স্বার্থান্বেষীমহল। উপাচার্যের পোষা পেটুয়াবাহিনীর কারণে আজ ছাত্রলীগের ১৫০ নেতাকর্মী পরীক্ষা দিতে পারছে না। তিনি বলেন, আমরা পরীক্ষা দিতে চাই এবং ক্যাম্পাসে ফিরে যেতে চাই।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, চলতি বছরের ৩০ মার্চ মাহফুজ, দিপু, ফরহাদ ও রয়েলসহ ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মী পরীক্ষা দিতে গেলে তাদেরকে হল থেকে বের করে দেয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের নির্দেশে এবং তার উপস্থিতিতে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবিরের নেতাকর্মীরা তাদেরকে নির্মমভাবে মারধর করে আহত করে। তাদের কোন চিকিৎসা না দিয়ে ক্যাম্পাসে আটকিয়ে রাখে এবং এ ঘটনা কারো কাছে না বলতে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। পরবর্তীতে তাদের শারিরিক অবস্থার অবনতি হলে প্রক্টর রাত সাড়ে ৯টায় তাদের দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফেলে রেখে চলে আসেন।
সংবাদ সম্মেলনে এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ছাত্র নামধারী ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন। তিনি বলেন, গত ২৭ মার্চ দিনাজপুর রেল স্টেশন চত্বরে ১৪ দল আয়োজিত মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনায় হাবিপ্রবি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করে। এর ফলে কোন এক অজ্ঞাত কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের হুকুমে তার পোষা গুন্ডাবাহিনীর (ছাত্রদল-ছাত্রশিবির এবং বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ কর্মী) মাধ্যমে স্টেশন চত্বরে ১৪ দলের আলোচনা সভায় অংশগ্রহণকারী ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উপর নির্যাতন করে।
বর্তমান উপাচার্যের বিভিন্ন অনিয়ম ও দূর্নীতির ফিরিস্ত তুলে ধরে অরুন কান্তি রায় সিটন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর রুহুল আমিনের দূর্নীতির খবর দৈনিক যুগান্তরসহ বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয়েছে। উত্তবঙ্গের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ও মর্যাদা ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার সভাপতি মো. ইফতেখারুল ইসলাম রিয়েল, প্রচার সম্পাদক আতিকুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক রফিকুল আলম, সদস্য মাহমুদুল হাসান মিন্টু, নাজমুল হাসান, মো. জাকারিয়াসহ অন্যান্য নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ