• শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ১০:১৩ পূর্বাহ্ন |
/ Uncategorized

পার্বতীপুরে বিকাশ গ্রাহকরা ভোগান্তির নেপথ্যে টেরিটরি ম্যানেজার !

BKASHরুকুনুজ্জামান বাবুল, পার্বতীপুর (দিনাজপুর): ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে বিকাশের টিএম হঠাৎ করে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে দুইটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বিকাশ ব্যবসা বন্ধ করে দিয়েছে। এর ফলে একদিকে যেমন ব্যবসায়ী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, অন্যদিকে গ্রাহকরাও ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে।
জানা যায়, দিনাজপুরের মনি এন্টারপ্রাইজ নামক ডিলারের অন্তর্ভূক্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে পার্বতীপুরে অন্যদের পাশাপাশি হাসান টেলিকম ও রবি টেলিকম বিশ্বস্ততার সাথে বিকাশ ব্যবসা করে আসছে। গত ৪ এপ্রিল বিকেলে দিনাজপুরে অবস্থানকারী বিকাশের টিএম (টেরিটরি ম্যানেজার) সুব্রত ভ্রমনে বিভিন্ন দোকানে এসে বিকাশের এজেন্ট ব্যবসায়ীদের কাছে নিজের ক্ষমতা জাহির করে ব্যবসা বন্ধ করে দেয়ার হুমকি ধমকি দিয়ে যায়। এর এক পর্যায়ে গত মঙ্গলবার বিকেলে উক্ত এজেন্টদের বিকাশ এজেন্ট সংযোগ গুলো বন্ধ করে দেয়। যার ফলে ব্যবসায়ীরা বিপাকে পড়ে এবং গ্রাহকরাও ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। এ ব্যাপারে হাসান টেলিকমের এম আলম এবং রবি টেলিকমের রবিউল ইসলাম জানায়, একটি একটি করে আমরা গ্রাহক সৃষ্টি করে ব্যবসা করছি। আর টিএম সুব্রত আমাদের কোন কিছু না জানিয়ে তার নিজের ইচ্ছায় আমাদের বিকাশের এজেন্ট সংযোগ বন্ধ করে দিয়েছে। উক্ত সংযোগ গুলো আমাদের বিনিয়োগের টাকা আটকে গেছে। আমরা তার কাছে জানতে চাইলে টিএম সুব্রত বলে, আমার সাথে ভাল আচরন না করায় আমি সংযোগ গুলো বন্ধ করে দিয়েছি। বন্ধ সংযোগগুলো চালু করার অনুরোধ জানালেও টিএম সুব্রত বলে, আমি এখন ব্যস্ত আছি। আগামী রোববার দিনাজপুর অফিসে আসেন, সাক্ষাতে কথা হবে। নাম না প্রকাশে একজন এজেন্ট জানান আমাদেক বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করা হচ্ছে গ্রহকদের ছোট খাট সমস্যার জন্য কাষ্টমার কেয়ারে যেতে বলে কাষ্টমার অফিস গুলো বিভাগীয় শহরে ও ঢাকায় হেড অফিসে। মোবাইল সার্ভিসে ম্যানুতে এস্টেটম্যান দেখা যায় না। কেওয়াইসি কমিশন ১ বছর থেকে বন্ধ অথচ বিকাশ লিঃ ব্যেতিত অন্য মোবাইল ব্যাংকি এ কেওয়াইসি কমিশন ২৪ ঘন্টার মধ্যে পরিশোধ করে। এ ব্যাপার গুলো নিয়ে কর্তৃপক্ষ কাছে কথা বললে ব্যবসা বন্ধের হুমকিদেয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়মনিতির বাহিরে কার্য্যকলাপ গুলো করচ্ছে।
এ ব্যাপারে মনি এন্টারপ্রাইজের কর্মকর্তা কামরুজ্জামান, ডিএসও মামুন জানান, এ ব্যাপারে আমাদের করার কিছু নেই। টিএম এর সাথে যোগাযোগ করেন। ক্ষতিগ্রস্ত এজেন্ট ও দূর্ভোগের শিকার গ্রাহকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলে, যেহেতু বিকাশ অর্থ লেনদেনের প্রতিষ্ঠান। কোন কিছু ভূল ভ্রান্তি হলে ব্যবসায়ীদের সতর্ক করে দেয়ার দরকার ছিল। কিন্তু কোন কিছূ না জানিয়ে হঠাৎ করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বিকাশ এজেন্ট সংযোগ বন্ধ করে দিয়ে টিএম সুব্রত নিজের ক্ষমতা জাহির করেছে। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা অবিলম্বে বন্ধ এজেন্ট সংযোগ চালু করে উক্ত টিএম এর অপসারনসহ ক্ষতিপূরনের দাবী জানায়। সেই সাথে বিকাশের সুনাম অক্ষুন্ন রাখার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

পার্বতীপুরের বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় চুরি না অন্য কিছু !
পার্বতীপুর শহরের বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় চুরি না অন্য কিছু। পুলিশ এ ঘটনায় ৬জনকে আটক করে। রহস্য জনক কারনে রাতে ৫ জনকে থানা থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। ১১ বছর ধরে বেতন না পাওয়া নাইট গার্ড বাহাদুরের তার খবর কি।
বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ এপ্রিল সকালে বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ে চুরি নিয়ে শহরে নানা গুঞ্জন শুরু হয়েছে। আসলেই কি চুরি হয়েছে না পরিকল্পিত ভাবে চুরি দেখানো হয়েছে। প্রায় ১১ বছর ধরে বেতন না পাওয়া নাইট গার্ড বাহাদুর জানালেন, ঘটনার দিন সকাল ৭টার দিকে ঘুম থেকে উটে দেখতে পায় কম্পিউটার রুমের দরজা খোলা। তিনি ঘটনাটি তার ভাই এলাকার কাউন্সিলর রোস্তম আলী ও প্রধান শিক্ষক মোক্তারু আলমকে অবগত করেন। পরে রাতে পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশের এস আই সাইফুল ইসলাম চোর সন্দেহে কানিজ, সোহেল, ফরিদ, সুজন, সোহাগ ও জনিসহ ৬ জনকে আটক করে। পরে রহস্য জনক কারনে কানিজ, সোহেল, ফরিদ, সুজন, সোহাগকে রাতেই থানা হাজত থেকে ছেড়ে দেয়া হয়। জনিকে চুরি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে জেল হাজতে পাঠানো হয়। পাহারাদার বাহাদুরসহ অনেকে বলেন, তার এলাকার ছেলে জনি ভাল ছেলে। তার বিরুদ্ধ কোন খারাপ কিছু শোনা যায়নি। তবে অপর ৫ জনের মধ্যে কাজির ছেলে কানিজ ও আফছারের পুত্র সোহেলের বিরুদ্ধ তার অভিযোগ রয়েছে।
এলাকার কম্পিউটার ব্যবসায়ী হাফিজুল ইসলাম ও শিক্ষা প্রতিষ্টানের মৌলভী শিক্ষক বললেন অন্য কথা। তারা জানালেন আসলে চুরি হয়নি। চুরি দেখানো হয়েছে। হাফিজুল ইসলাম আরো জানালেন, দরজা যে ভাবে ভাঙ্গানো দেখানো হয়েছে তাতে পরিস্কার ভাবে বুঝা যায় যে, পরিকল্পিত ভাবে তালা খুলে পরে দরজা ভাঙ্গা দেখানো হয়েছে। তবে এ সময় বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিকক্ষসহ অনেকেই উপস্থিত থাকলেও হাফিজুল ইসলামের কথার প্রতিবাদ করলেন না। স্থানীয় অনেকের ধারনা পরিকল্পিত চুরি দেখিয়ে স্থানীয় মন্ত্রী মহাদয়ের কাছে ফায়দা নেয়ার চেষ্টা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ