• সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:২৫ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
সৈয়দপুরে পূর্ব শক্রতার জেরে যুবককে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ ট্রেনের ভাড়া বাড়ানো হতে পারে : রেলমন্ত্রী জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে জাপার দুইদিনের কর্মসূচি প্রেমিকাকে রেললাইনের ধারে দাঁড় করিয়ে ট্রেনের নিচে প্রেমিকের ঝাপ ফুলবাড়ীতে কোরিয়ান মেডিকেল টিমের ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প উদ্বোধন বিয়ের দাবিতে চাচার বাড়িতে ভাতিজির অনশন সৈয়দপুর খাদ্য গুদাম শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার খানসামায় ট্রাক ও পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১ পাঁচ বছরেও শেষ হয়নি ১৭৫ মিটার সেতুর কাজ: ভোগান্তি লক্ষাধিক মানুষের বৈঠকের মধ্য দিয়ে পাকেরহাটে যাত্রা শুরু করলো শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদ
/ Uncategorized

ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনা: সাত দিবসের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট, চালক ও হেলপারের বিরুদ্ধে মামলা

vangay-sorok-durgotona1সিসি নিউজ : ফরিদপুরের ভাঙ্গায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত পরিবহনের চালক মো. জাকির হোসেন এবং তার সহকারী (হেলপার) মো. মন্টু খানের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, চালক জাকির হোসেন ও হেলপার মন্টু খানের বিরুদ্ধে হাইওয়ে থানায় মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলাটি করেন ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হোসেন। এর আগে, ৫ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিতে জেলা প্রশাসন, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, বিআরটিএ ও হাইওয়ে পুলিশের প্রতিনিধি রয়েছেন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবদুর রশিদের নেতৃত্বে কমিটির সদস্যরা হলেন- পুলিশের ভাঙ্গা সার্কেল অফিসার এএসপি সামশুল হক, ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক খন্দকার শামসুদ্দোহা, ফরিদপুর বিআরটিএর সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ নুরুজ্জামান এবং মাদারীপুর হাইওয়ে অঞ্চলের সহকারী পুলিশ সুপার বেলাল হোসেন। তদন্ত কমিটিকে আগামী ৭ কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। বুধবার রাত দেড়টার দিকে ঢাকা থেকে কুয়াকাটাগামী সোনার তরী পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস ভাঙ্গা উপজেলার পূর্ব সদরদী এলাকায় পৌঁছালে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। এতে বাসটি রাস্তার পাশের গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে খাদে পড়ে দুমড়ে মুচড়ে যায়। এ সময় বাসে থাকা ৪৪ যাত্রীর মধ্যে ঘটনাস্থলেই ২০ জন নিহত হন। এদের মধ্যে ৫ জন মহিলা ও ১ শিশু রয়েছে। এ সময় আহত হন আরো ২৪ জন। ঘটনার পরপরই এলাকাবাসী, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার অভিযানে অংশ নেয়। পরে আহতদের প্রথমে ভাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে আরো ৫ জন মারা যান। পরে আহত ২০ জনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে ৭ জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। এরা হলেন- পটুয়াখালীর খেপুপাড়া এলাকার শাহীন (২৮), একই এলাকার আসমা বেগম (২৭), গোপালগঞ্জের মকসুদপুরের শফিকুল ইসলাম (৩২) (হেলপার), বরিশালের বানারীপাড়ার আফজাল হোসেন (অবসারপ্রাপ্ত নৌবাহিনীর সার্জেন্ট)। ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২৫ জনের প্রত্যেক পরিবারকে ১০ হাজার টাকা সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে জেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার সকাল এ ঘোষণা দেন ফরিদপুর পুলিশ সুপার জামিল হাসান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ