• শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৫৮ পূর্বাহ্ন |

যানজট ও সন্ত্রাসমুক্ত ঢাকা গড়ার অঙ্গিকার খোকনের

Sayd-Khokon-2সিসি নিউজ : আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজধানী ঢাকা যানজট, পানি, বিদ্যুৎ, দূষণমুক্ত বুড়িগঙ্গা ও সন্ত্রাসমুক্ত ঢাকা গড়ার ৫টি অগ্রাধিকারমূলক অঙ্গীকারসহ মোট ১৫ দফার ইশতেহার ঘোষণা করেছেন ঢাকা দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী সাঈদ খোকন। আজ রবিবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে ‘সহস্র নাগরিক কমিটির ব্যানারে’ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ইশতেহার ঘোষণা করেন। নির্বাচিত হলে ইশতেহার বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়ে সকলের দোয়া চান তিনি। নির্বাচনী ইশতেহারে অগ্রাধিকার দেয়া ৫টি বিষয় হলো- যানজট নিরসন, দূষণমুক্ত, নাব্য ও নিরাপদ বুড়িগঙ্গা, পানি, গ্যাস ও বিদ্যুৎ সেবা নিশ্চিত করা, পরিচ্ছন্ন, দূষণমুক্ত ও স্বাস্থ্যকর মহানগরী প্রতিষ্ঠা এবং দুর্নীতি, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে যুদ্ধ এবং নাগরিকদের নিরাপদ জীবন নিশ্চিত করা। প্রসঙ্গত নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী-চলতি মাসের ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ এবং চট্টগ্রাম সিটি করর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
এছাড়া অন্যান্য কর্মপরিকল্পনাগুলো হলো- ডিজিটাল মহানগরী, শিক্ষার সুযোগ সবার জন্য অবারিত করা, বস্তি উন্নয়ন ও হরিজন সম্প্রদায়ের মানবিক মর্যাদা ও সমতা সৃষ্টি, আবাসন সমস্যার সমাধানে জরুরি পদক্ষেপ, ঐতিহ্য সংরক্ষণ, অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধ, ক্রীড়া ও চিত্ত বিনোদনের ক্ষেত্র তৈরি, কামরাঙ্গীরচরের নতুন তিনটি ওয়ার্ড তৈরি, ধর্মপালন এবং নগর সুশাসন নিশ্চিত করা। আর নির্বাচিত হলে নগরপিতা হিসেবে নয়, সন্তান হিসেবে শেষদিন পর্যন্ত কাজ করে যাবেন বলেও জানান তিনি।
ইশতেহার ঘোষণার সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সাঈদ খোকনের নির্বাচনী সমন্বয়ক ও আওয়ামী লীগের কৃষি সম্পাদক ড. আবদুর রাজ্জাক, ঢাকা মহানগরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজ, সহস্র নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক, ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর সভাপতি ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য কাজী আকরাম উদ্দিন আহমদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ম. হামিদ, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, উপদপ্তর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস প্রমুখ।
ঢাকার সাবেক সফল মেয়র মোহাম্মদ হানিফের ছেলে সাঈদ খোকন বলেন, নির্বাচিত হতে পারলে যানজট, পানি, বিদ্যুৎ প্রভৃতি সমস্যা দুর করাই হবে আমার প্রধান লক্ষ। আমার প্রধান স্লোগান হবে পরিকল্পিত উন্নয়ন, সুযোগের সমতা, নিরাপদ ও দূষণমুক্ত আধুনিক ঢাকা। তিনি বলেন, আমি অবাস্তব, কল্পনা বিলাসী এবং আকাশকুসুম কোনো ইশতেহার ঘোষণা করিনি। এটা বাস্তবায়ন করা অবশ্যই সম্ভব। এই অঙ্গীকার জীবনের বিনিময়ে হলেও আমি বাস্তবায়ন করবো। তাকে ভোট দেয়া এবং নির্বাচিত করা মানে ঢাকার উন্নয়নের পথ তরান্বিত করা বলে জানান তিনি। সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তাকে নির্বাচিত করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আসুন আমরা সবাই মিলে সবার সমন্বিত প্রচেষ্টায় পুরনো ঢাকাকে বদলে দেই। স্বপ্নের আধুনিক ঢাকা গড়ে তুলি।
নির্বাচনী ইশতেহারে জানানো হয়, বাসযোগ্য ও আধুনিক উন্নত বিশ্বমানের মহানগর গড়ে তোলাই সহস্র নাগরিক কমিটি সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী সাঈদ খোকনের লক্ষ্য। জীবনের শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে হলেও ইশতেহারে দেয়া এসব কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করেন সাঈদ খোকন। তার বাবা ঢাকার প্রথম নির্বাচিত মেয়র প্রয়াত মোহাম্মদ হানিফের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, এ সময়ে আমার পাশে থাকার কথা ছিল আমার বাবারও। আমি তার অনুপস্থিতি ভীষণভাবে অনুভব করি। তবে সাহসী হই, যখন দেখি আপনারা (ঢাকাবাসী) আমার পাশে আছেন। আপনারাই আমার পিতা-অভিভাবক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ