• শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০২:৩৯ অপরাহ্ন |

পঞ্চগড় সীমান্তে বসছে দুই বাংলার মিলনমেলা

Thakurgaon-Milon-mala-bg20130415063127পঞ্চগড়: বাংলা নববর্ষ পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে পঞ্চগড় জেলা সদরের অমরখানা ও বোদাপাড়া সীমান্তে প্রতিবারের মত মঙ্গলবার বসছে দুই বাংলার মিলনমেলা। প্রতিবছর এ দিনটিতে আপনজনদের সাথে দেখা করতে সকাল থেকে হাজির হতে থাকেন উভয় দেশের নারী-পুরুষ-শিশুরা।
উৎসবের ঢল নামে পঞ্চগড় সদর উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের অমরখানা ও বোদাপাড়া গ্রাম ও ভারতের জলপাইগুড়ি জেলার রায়গঞ্জ থানার খালপাড়া, ভিমভিটা, গোমস্তাবাড়ি ও বড়ুয়াপাড়া গ্রামের কাঁটাতারের বেড়ার দু’পাশে।
স্থানীয়রা জানান, পাক-ভারত বিভক্তির আগে বর্তমান পঞ্চগড় জেলা ছিল ভারতের জলপাইগুড়ি জেলার অধীন। ৪৭’এ পাক-ভারত বিভক্তির পর সীমান্তবর্তী এ দেশের অনেকের আত্মীয় স্বজন ভারতীয় অংশে থেকে যায়। ৭০ দশকেও উভয় দেশের লোকজন প্রায় বিনা বাধায় যাতায়াত করতে পারলেও ৮০’র দশকে তা থেমে যায়। এছাড়া ভারতীয় কর্তৃপক্ষ সীমান্ত জুড়ে কাটাতারের বেড়া নির্মান করায় যাতায়াত একেবারে বন্ধ হয়ে যায়। পরবর্তীকালে অর্থের অভাবে পাসপোর্ট ও ভিসা করতে অসমর্থ হওয়ায় আত্মীয় স্বজনদের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। আর সে কারণে নববর্ষের এ দিনটির জন্য অপেক্ষা করতে দেখা যায় উভয় দেশে বসবাসকারী লোকজনকে। দেখা সাক্ষাতের সময় প্রিয়জন ও আত্মীয় স্বজনদের সামর্থ অনুযায়ী উপহার সামগ্রী তুলে দেয় একে অপরকে।
এ ব্যাপারে পঞ্চগড় ১৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ আরিফুল হকের সাথে কথা বললে তিনি জানান, অমরখানা সীমান্তে প্রতি বছর পহেলা বৈশাখে উভয় দেশের সীমান্ত রক্ষীদের সহযোগিতায় দুই বাংলার নাগরিকদের মিলনমেলা হয়। এবারও আমরা বিএসএফকে অনুরোধ করেছি তারা যেন তাদের দেশের লোক আসলে কাঁটাতারের বেড়ার পাশে আসার সুযোগ দেয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ