• মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন |

খালেদা ও খোকনের পথসভায় বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ

124893_1ঢাকা: রাজধানীর ফকিরাপুল কাঁচাবাজারে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহর এবং সহস্র নাগরিক কমিটি সমর্থিত মেয়র পদপ্রার্থী সাঈদ খোকনের পথসভা মুখোমুখি হওয়ায় বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ ও হতাহতের ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার পর ফকিরাপুল কাঁচাবাজার এলাকার আবাসিক হোটেল আকসা ও হোটেল আসমার মাঝামাঝি গলির সম্মুখে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সহস্র নাগরিক কমিটি  সমর্থিত মেয়র পদপ্রার্থী সাঈদ খোকন ফকিরাপুল আল-আমিন কমপ্লেক্সে হোটেল আলীমের নিচে নির্বাচনী পথসভা শেষ করে আওয়ামী লীগ-সমর্থিত ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী এ কে এম মমিনুল সাঈদসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে ওই গলি হয়ে ফকিরাপুল কাঁচাবাজারের দিকে যাচ্ছিলেন।

সাঈদ খোকনের নেতৃত্বে নেতা-কর্মীরা গলি হয়ে রাস্তার সম্মুখে আসেন। অন্যদিকে, মালিবাগের নির্বাচনী পথসভা শেষ করে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর আসছিল ওই রাস্তা দিয়ে।

এ সময় এ দুটি গ্রুপ মুখোমুখি হলে উভয় পক্ষের মধ্যে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও হাতাহাতির মতো বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পরবর্তীতে আইনশৃংখলা রক্ষাবাহিনীর সহায়তায় খালেদা জিয়ার গাড়িবহর ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এরপর সেখানে তাৎক্ষনিক পথসভায় বক্তব্য রাখেন সাঈদ খোকন ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।
সাঈদ খোকন বলেন, ‘আজকে এই এলাকায় আমাদের পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি ছিল। খালেদা জিয়া ইলিশ মার্কার জোয়ারে ভীত সন্ত্রস্ত বলেই তার নেতা-কর্মীরা এই হামলার ঘটনা ঘটায়।

এ সময় তিনি নেতা-কর্মীদের ধৈর্য্যের সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবিলা করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘খালেদা জিয়া আবারো ঢাকার রাজপথ রক্তে রঞ্জিত করার চক্রান্ত করছেন। আগামী ২৮ এপ্রিল ঢাকাবাসী ভোটের মাধ্যমে তার এই চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রের জবাব দেবে।’

সাঈদ খোকন আরো বলেন, ‘আমি আপনাদের কথা দিচ্ছি, খালেদা জিয়ার নেতা-কর্মীরা যদি আপনাদের ওপর আক্রমণ করে, তাহলে নিজের জীবন দিয়ে হলেও আপনাদের জীবন রক্ষা করবো।’

পরে নেতা-কর্মীদের প্রটোকল নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে ফকিরাপুলের দিকে রওনা করেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খোকন।

এ সংঘর্ষের ঘটনায় তাৎক্ষনিকভাবে সাদ্দাম হোসেন নামে একজন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। তিনি সাঈদ খোকন ও মমিনুল হক সাঈদের নির্বাচনী প্রচারণায় উপস্থিত ছিলেন। এ সময় হ্যান্ডমাইক থেকে তার নাম ঘোষণা করে তাকেও খোঁজা হচ্ছিল।

সেখানে উপস্থিত এক ফুটপাতের দোকানদান জানান, খালেদা জিয়ার গাড়িবহর এবং সাঈদ খোকনের নির্বাচনী পথসভার নেতা-কর্মীরা গলিমুখে মুখোমুখি হলে দুই পক্ষই উত্তেজিত হয়ে ওঠে এবং বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

তার আগে সাঈদ খোকন সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে দৈনিক বাংলা মোড়ের পাশে ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মমিনুল হক সাঈদের নির্বাচনী ক্যাম্পের সামনে আসেন। এরপর তিনিসহ নেতা-কার্মীরা মতিঝিল আরামবাগের বিভিন্ন গলিতে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে ঢাকা মেরিনার ইয়াংস ক্লাবের সামনে যান। ক্লাবের ভিতরে ক্লাব-সদস্যদের সঙ্গে কিছুক্ষণ একান্ত সময় কাটান তারা। এরপর সেখান থেকে বেরিয়ে আরামবাগের বিভিন্ন গলি প্রদক্ষিণ করে ফকিরাপুল আল-আমিন কমপ্লেক্সের নির্বাচনী পথসভায় যোগ দেন।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ছাড়াও ওই পথসভায় দলের  কার্যনির্বাহী সদস্য সুজিত রায় নন্দী বক্তব্য রাখেন।  উৎস: রাইজিং বিডি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ