• রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০, ০৮:১৯ পূর্বাহ্ন |

ভু-কম্পনে নীলফামারী ৩৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফাটল

Red Chilli Saidpur

imagesসিসি নিউজ: বড় ধরণের ক্ষয়ক্ষতি না হলেও তিন দফায় ভু-কম্পনের প্রভাবে নীলফামারীতে ভুমি অফিস, ইউনিয়ন পরিষদসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মিলে ৩৭টি স্থাপনায় ফাটল দেখা দিয়েছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির তালিকায় এলজিইডি ও শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্মিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই রয়েছে বেশী।
সংশ্লিষ্ঠ সুত্র জানায়, ক্ষয়ক্ষতির তালিকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় ৩০টি, উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ ৫টি এবং ১টি ভুমি অফিস ও ১টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তের তালিকায় কিশোরগঞ্জ উপজেলা ভুমি অফিস, কিশোরগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ ভবন ছাড়াও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বড়ভিটা বাজার উচ্চ বিদ্যালয়, কানিয়াল খাতা উচ্চ বিদ্যালয়, লক্ষ্মীচাপ উচ্চ বিদ্যালয়, গোসাইগঞ্জ স্কুল এ্যান্ড কলেজ, ও ডালিয়া দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়। এছাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালিকায় রয়েছে উত্তর বড়ভিটা, নতুন বাজার মডেল, নীলফামারী সরকারী, নগর দারোয়ানী, শাখামাছা বাজার, তিলাই জয়চন্ডি, রামগঞ্জ, গুড়গুড়ি, দোলাপাড়া, বেঙমারী ডাঙ্গাপাড়া, দক্ষিণ খোকশাবাড়ি আব্দুল জব্বার, নিজপাড়া, বাহালিপাড়া, উত্তর ঝুনাগাছ চাপানী, দক্ষিণ ঝুনাগাছ চাপানী, খালিশা চাপানী ফারহানা রউফ, ছোট রাউতা প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তর পাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, খারিজা গোলনা দিঘিরপাড়, ধর্মপাল মাঝাপাড়া, ধর্মপাল উত্তর পাড়া, কালিগঞ্জ গোলনা, বাঁশদহ, মীরগঞ্জ, টেঙ্গনমারী, আমরুলবাড়ি, হরিশচন্দ্র পাঠ, দেক্ষিণ দেশিবাই ডাঙ্গাপাড়া, বালাপাড়া ব্রক্ষ্মোত্তর, কৈমারী ও দুন্দিবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠান গুলোর বিষয়ে নীলফামারী জেলা প্রশাসক মোঃ জাকীর হোসেন জানান, প্রাথমিক ভাবে তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর সঠিকতা যাচাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রসঙ্গত শনিবার ও রবিবার দুপুরে এবং সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে মৃদু ভু-কম্পন অনুভুত হয় নীলফামারীতে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ