• সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ০১:৪১ পূর্বাহ্ন |

২০১৬ শিক্ষাবর্ষে ইন্টারএ্যাকটিভ ডিজিটাল টেক্সটবুক চালু

NAHID-1ঢাকা: শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, ২০১৬ শিক্ষাবর্ষে প্রচলিত পাঠ্যবইয়ের পাশাপাশি পরীক্ষামূলকভাবে ৬ষ্ঠ শ্রেণির জন্য ইন্টারএ্যাকটিভ ডিজিটাল টেক্সটবুক চালু করা হবে। পর্যায়ক্রমে তা অন্যান্য ক্লাসের জন্যও করা হবে।

শিক্ষামন্ত্রী আজ জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমির (নায়েম) সভাকক্ষে টিকিউআই প্রকল্প আয়োজিত দু’দিনব্যাপী কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষাসচিব মো. নজরুল ইসলাম খান।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ফাহিমা খাতুনের সভাপতিত্বে টিকিউআই প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) বনমালী ভৌমিক, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর নারায়ণ চন্দ্র পাল, নায়েমের মহাপরিচালক প্রফেসর হামিদুল হক প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, চলমান বিশ্বের সাথে তাল মেলাতে বাংলাদেশের শিক্ষাখাতে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার অনেকখানি বৃদ্ধি করা হয়েছে এবং আরো হচ্ছে। শিক্ষার মানোন্নয়ন, বোধগম্যতা, আকর্ষণীয়তা বৃদ্ধি ও সহজলভ্যতা সৃষ্টিতে তথ্য প্রযুক্তির বিকল্প নেই।

শিক্ষা একটি প্রতিনিয়ত অগ্রসরমান বিষয় উল্লেখ করে নাহিদ বলেন, আমরা ১৭ বছর পর শিক্ষাক্রম যুগোপযোগী করেছি। এভাবে আর চলতে দেয়া যায় না, নিত্য-নতুন পরিবর্তনের বিষয়াদি শিক্ষার্থীদের জানাতে হবে। বইকে আরো রঙ্গিন ও আকর্ষণীয় করতে হবে। আমরা প্রচলিত পাঠ্যপুস্তকের পাশাপাশি সকল ক্লাসে ইন্টারএ্যাকটিভ ডিজিটাল বই চালু করার উদ্যোগ নিয়েছি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দেশের অভিজ্ঞ তথ্যপ্রযুক্তিবিদগণের সহায়তায় আমাদের টিচার্স ট্রেনিং কলেজ সমূহের অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলিকে দিয়ে ডিজিটাল বই করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, প্রতিটি বইয়ের কঠিন শব্দ, বাক্য, বিষয় ইত্যাদি সহজভাবে বুঝানোর জন্য শব্দার্থ, ব্যাখ্যা, এনিমেশন, ছবিসমূহ রঙ্গিন করা, প্রয়োজনীয় ভিডিও যুক্ত করাসহ নানা বিষয় নানাভাবে তুলে ধরা হবে। নব এ উদ্যোগের ফলে নতুন প্রজন্মের জন্য প্রযুক্তির নতুন দ্বার উন্মোচিত হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ