• শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:০৯ অপরাহ্ন |

শেষ টেষ্টে ভালো অবস্থানে পাকিস্তান

0011430911692খেলাধুলা ডেস্ক: দুই ম্যাচ সিরিজের শেষ টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নামে সফরকারীরা। ৫৮ রানে ২ রানেই উইকেটে হারালেও আজহার আলী ও ইউনিস খানের বড় জুটিতে প্রথম দিনটি নিজেকের করে নিয়েছে পাকিস্তান। দিন শেষে তাদের সংগ্রহ ৩ উইকেট হারিয়ে ৩২৩ রান। ক্রিজে রয়েছেন আজহার আলী (১২৭) ও মিসবাহ-উল-হক (৯)। দিনশেষে স্কোরকার্ডটি ভিন্ন হতে পারত, যদি শহীদ ও সৌম্য সরকারের দুটি আউট ‘নো’ বলের কারণে বাতিল না হত।

প্রথম দিনে পাকিস্তানের যে তিন ব্যাটসম্যান আউট হয়েছেন তার হলেন- মোহাম্মদ হাফিজ (৮), সামি আসলাম (১৯) ও ইউনিস খান (১৪৮)। আজহার আলীর সঙ্গে ইউনুস খান ২৫০ রানের জুটি গড়েন। যা তাদেরকে প্রথম দিনে তিন শতাধিক রান পেতে সাহায্য করে। অবশ্য আজহার আলী ও ইউনিস খান শহীদ ও সৌম্য সরকারের বলে জীবন পান।

টস জিতে ফিল্ডিং করতে নেমে অবশ্য প্রথমে একটা ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। প্রথম ওভারে বল করতে গিয়ে হাঁটুতে ব্যথা পেয়ে মাঠ ছাড়েন পেসার শাহাদাত হোসেন। তবে ইনিংসের চতুর্থ ওভারে পাকিস্তানকে ধাক্কা দেয় বাংলাদেশ। দলীয় ৯ রানে মোহাম্মদ হাফিজকে সাজঘরে পাঠান মোহাম্মদ শহীদ। হাফিজকে উইকেট রক্ষক মুশফিকের গ্লাভসবন্দি করান শহীদ। ১৬ বল খেলে হাফিজ ৮ রান করেন।

ইনিংসের ১২তম ওভারে নিজের দ্বিতীয় উইকেট পেতে পারতেন শহীদ। তার ডেলিভারিতে থার্ড স্লিপে আজহার আলীর দারুণ এক ক্যাচ নেন সৌম্য সরকার। কিন্তু পরে থার্ড আম্পায়ার বলটি ‘ওভারস্টেপের’ কারণে ‘নো’ দেন। যদিও শহীদের পায়ের গোড়ালি পুরোপুরি লাইন অতিক্রম করেনি!

সামি আসলামকে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে প্রতিরোধ গড়েন জীবন ফিরে পাওয়া আজহার। দলের স্কোর ৫০ পার করেন দুজন। তবে এর পরেই সামিকে ফিরিয়ে তাদের ৪৯ রানের জুটি ভাঙেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। তাইজুলের বল হাওয়ায় ভাসিয়ে মারেন সামি। বাউন্ডারির কাছে ক্যাচ নেন চোট কাটিয়ে মাঠে ফেরা শাহাদাত হোসেন। সামির সংগ্রহ ১৯ রান।

এরপর ২ উইকেটে ৭০ রান নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় পাকিস্তান। বিরতি থেকে ফিরে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৫০ রান পূরণ করেন আজহার আলী ও ইউনুস খান। একটু পর নিজেদেরও ফিফটি পূরণ করেন দুজন। আজহার ক্যারিয়ারের ২০তম ও ইউনিস ৩০তম ফিফটি তুলে নেন। এরপর তারা দুজন সেঞ্চুরিও তুলে নেন। কিন্তু দলীয় ৩০৮ রানে শহীদের বলে শুভাগত হোমের হাতে ধরা পড়েন ইউনুস খান। আউট হওয়ার আগে তিনি ১৪৮ রানের একটি মূল্যবান ইনিংস খেলেন। তার এই ইনিংসে ১১টি চার ও ৩টি ছক্কার মার ছিল । এরপর অবশ্য দিনের বাকি সময়টুকু পার করেন আজহার ও মিসবাহ মিলে।

খুলনা টেস্টের একাদশ থেকে বাংলাদেশ দলে একটি পরিবর্তন এসেছে। ইনজুরিতে বাদ পড়া পেসার রুবেল হোসেনের জায়গায় খেলতে নামেন শাহাদাত হোসেন রাজীব। কিন্তু ইনজুরির কারণে তিনিও ছিটকে পরেছেন।

পাকিস্তান দলেও একটি পরিবর্তন এসেছে। জুলফিকার বাবরের বদলে দলে ঢুকেছেন ইমরান খান।

বাংলাদেশ দল : মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান, শুভাগত হোম, সৌম্য সরকার, তাইজুল ইসলাম, মোহাম্মদ শহীদ, শাহাদাত হোসেন রাজীব।

পাকিস্তান দল : মিসবাহ-উল-হক (অধিনায়ক), মোহাম্মদ হাফিজ, সামি আসলাম, আজহার আলী, ইউনিস খান, সরফরাজ আহমেদ, আসাদ শফিক, ইয়াসির শাহ, ইমরান খান, ওয়াহাব রিয়াজ ও জুনায়েদ খান।

পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। জিতেছে টি-টোয়েন্টিতেও। সেই সঙ্গে প্রথমবারের মতো টেস্টেও গৌরবের ড্র করেছেন টাইগাররা। এবার প্রথমবারের মতো টেস্ট সিরিজ জয়ের হাতছানি বাংলাদেশের সামনে। আর সে লক্ষ্যে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে পাকিস্তানের মুখোমুখি হয়েছে মুশফিক বাহিনী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ