• বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০২:৫০ পূর্বাহ্ন |

হিলি বন্দর পরিদর্শনে কলকাতা কাস্টমস কমিশনার

Dinajpur-HILLI-PORT-হিলি প্রতিনিধি : বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বাড়াতে এবং বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা দূর করতে ভারতের কলকাতা কাস্টমসের কমিশনার এন কে শরেনসহ ভারতীয় ব্যবসায়ীরা হিলি স্থলবন্দর পরিদর্শন করেছেন।

দিনাজপুরের হিলি বন্দর দিয়ে রবিবার দুপুর দেড়টার দিকে ভারতের কলকাতা কাস্টমসের কমিশনার এন কে শরেন, ডেপুটি কমিশনার নিম শিং, সহকারী কমিশনার প্রাণ লামার নেতৃত্বে হিলি কাস্টমসের কর্মকর্তা এবং ভারতের আমদানি-রফতানিকারক ব্যবসায়ীদের সমন্বয়ে ২৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল হিলি সীমান্তের শূন্য রেখায় আসেন। এ সময় বাংলাদেশের হিলি কাস্টমস ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

ভারতের কলকাতা কাস্টমসের কমিশনার এন কে শরেনের নেতৃত্বে আট সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল হিলি স্থলবন্দর পরিদর্শনে আসেন। তারা বন্দরের ভেতরে পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ ও বের হওয়া এবং পণ্য খালাস ও ভর্তিসহ বন্দরের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। পরে হিলি কাস্টমসের সহকারী কমিশনারের কক্ষে কাস্টমস কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এক ঘণ্টা বৈঠক করেন।

বৈঠকে দুই দেশের ব্যবসায়ীরা হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পণ্য আমদানি বাড়াতে বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কথা তুলে ধরেন। বন্দরের আমদানি-রফতানি বাণিজ্যে গতিশীলতা আনতে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে কমিশনারের কাছে ভারত হিলি কাস্টমসে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার পোস্টিং, কৃষি সম্প্রসারণ কেন্দ্র স্থাপন ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের দাবি সম্বলিত একটি পত্র দেওয়া হয়।

বৈঠকে ভারতের হিলি কাস্টমসের সুপারিনটেনডেন্ট দেবাশীষ দত্ত, ধীমান সরকার, অরুন কুমার মণ্ডল, হিলি এক্সপোর্টার এ্যান্ড সিএ্যান্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অশোক কুমার মণ্ডল, সিএ্যান্ডএফ এজেন্ট পান্না দা, হিলি কাস্টমসের সহকারী কমিশনার সাইফুর রহমান, রাজস্ব কর্মকর্তা সাবেদ আলী, বাংলাহিলি কাস্টমস সিএ্যান্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আবুল কাশেম আজাদ, সম্পাদক আব্দুর রহমান লিটন, যুগ্ম-সম্পাদক জামিল হোসেন চলন্ত, হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের আহ্বায়ক হারুন উর রশীদ হারুন, পানামা হিলি পোর্ট লিংক লিমিটেডের সহকারী ব্যবস্থাপক এস এম হায়দার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ