• বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৮:১৭ অপরাহ্ন |

মুসলিম হওয়ায় চাকরি পেল না যুবক

Zisan_Ali1432212803আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শিক্ষাগতসহ সব যোগ্যতা মেনেই মুম্বাইয়ের নামকরা ডায়ামন্ড আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানে আবেদনপত্র জমা দিয়েছিলেন চাকরি প্রত্যাশী জিসান আলী খান (২৩)। কিন্তু অন্য সব সম্প্রদায়ের চাকরি প্রত্যাশীদের আবেদনপত্র গ্রহণ করলেও তার টা নেয়নি কর্তৃপক্ষ। হরে কৃষ্ণ এক্সপোর্টস প্রাইভেট লিমিটেডে নামের বহুজাতিক ওই প্রতিষ্ঠানের বক্তব্য, মুসলিমদের আবেদনপত্র গ্রহণ করা হবে না।

বৈষম্যমূলক ওই ঘটনায় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দেওয়া হয়েছে। দেশটির বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমে  এ নিয়ে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে বলে টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে।

খবর বলা হয়, সদ্য এমবিএ পাস করা জিসানের আবেদন প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পরদিনই তার দুই সহপাঠী মুকুন্দ মানি ও ওমকার বানসোড়েকে মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হয়।

জিসান জানান, ১৯ মে বিকেল ৫টা ৪৫ মিনিটে হরে কৃষ্ণ এক্সপোর্টস প্রাইভেট লিমিটেডে মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ পদে চাকরির জন্য ইমেইলে জীবনবৃত্তান্ত পাঠান। ঠিক ১৫ মিনিট পর প্রতিষ্ঠানটির মানবসম্পদ বিভাগের পক্ষ থেকে ফিরতি মেইল পাঠানো হয়।

মেইলটিতে লেখা ছিল, ‘আমরা দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, আমরা শুধু অমুসলিম প্রার্থীদের চাকরি দিয়ে থাকি।’

এ ঘটনার পর পরই ফিরতি মেইলের ওই কপি ফেসবুক ও টুইটারে শেয়ার করেন জিসান। দ্রুত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। প্রতিষ্ঠানটির এ বর্ণবাদী আচরণ ব্যাপক সমালোচিত হয়।

ভুক্তভোগী তরুণ মুম্বাইয়ের একটি পুলিশ স্টেশনে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। এ ছাড়া সংখ্যালঘু বিষয়ক জাতীয় কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেছেন এক মানবাধিকারকর্মী।

মুম্বাইয়ের পুলিশ ইন্সপেক্টর সূর্যকান্ত জগদ্দল জানিয়েছেন, তদন্ত করা হচ্ছে। এ ঘটনার সঙ্গে কেউ জড়িত প্রমাণিত হলে তার তিন বছরের জেল হতে পারে।

তবে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, তাদের প্রতিষ্ঠানে চাকরির ক্ষেত্রে কোনো ধর্মীয় বৈষম্য নেই। এটা ভুলক্রমে হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত মানবসম্পদ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ