• শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন |

চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্রের ডান তীর রক্ষা প্রকল্পে অনিয়ম

Oniচিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের চিলমারীতে পাউবোর ব্রহ্মপুত্র নদের ডানতীর প্রতিরক্ষা প্রকল্পের কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ঠিকাদাররা সিডিউল বহির্ভূতভাবে ঢিমেতালে কাজ চালিয়ে গেলেও ক্ষয়ে যাচ্ছে তৈরীকৃত ব্লক। ব্লকের নীচে বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলার ক্ষেত্রে কিছু ব্যাগ পানিতে ফেলে বাকী ব্যাগ বালু ফেলে দিয়ে শ্রমিকরা তাদের ঠিকাদার ও পাউবোর দায়িত্বে থাকা লোকদের চোখের সামন দিয়ে চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে। এতে কারো নজরদারী নেই।
ডানতীর প্রতিরক্ষা প্রকল্পের ৫বছর মেয়াদী ১শ ৯১ কোটি টাকা ব্যয়ে মোট ৫কিঃমিঃ এর মধ্যে রমনা এলাকার ৬টি প্যাকেজের ২০১৪-১৫ অর্থ বছরের কাজ ঢিমেতালে চলছে। কাজের জন্য তৈরী ব্লকগুলি পরিত্যাক্ত হওয়ার উপক্রম হয়ে পরে আছে। নিয়মবর্হিভূতভাবে তৈরী হওয়ায় নদীতে ফেলার আগেই ক্ষয়ে যাচ্ছে তৈরীকৃত ব্লক।বর্তমান নিয়মানুযায়ী তৈরীকৃত ব্লক এবং নদী তীরে ব্লকের নীচে ফেলার জন্য বালু ভর্তি জিও ব্যাগ বিশেষ দায়িত্বে থাকা তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী তোফায়েল আহমেদ স্বশরীরে গননা করার পর নদীতে ফেলা হবে। সরে জমিনে,গত সোমবার বিকেলে উপজেলার রমনা ইউনিয়নের ৬ টি প্যাকেজের মধ্যে ঠিকাদার বেলালের ৪ কোটি ৪৯ লক্ষ ৫৮ হাজার টাকার ১৪০ মিটার কাজের ৫নং সাইডে তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী তোফায়েল আহমেদ কর্তৃক গননাকৃত জিও ব্যাগ নদীতে ফেলার সময় প্রত্যেক শ্রমিক ব্যাগের সেলাই খুলে বালু ফেলে রেখে ওই জিও ব্যাগগুলি নিজেদের হাত ব্যাগে ভর্তি করে নিয়ে যায়। স্থানীয় ফরিস মাস্টার, মমিনুল,রেজাউল করিমসহ অনেকে মিলে শ্রমিক পরিমল,নির্মল,মুকুলসহ কয়েকজনকে ১৪টি খালি জিও ব্যাগসহ আটক করে। এসময় পাউবো কর্তৃক নিযুক্ত আঃ মজিদ, এস ও আবুল কালাম আজাদসহ ৫নং সাইডের ঠিকাদারের জনবল উপস্থিত ছিলেন। সাংবাদিকরা প্রকল্পের তথ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে এসও আবুল কালাম আজাদ তথ্য পানি উন্নয়ন বোর্ড কুড়িগ্রাম জেলার নির্বাহী প্রকৌশলীর নিকট গিয়ে নিতে হবে জানিয়ে কেটে পড়েন। জিও ব্যাগ চুরিসহ ডানতীর রক্ষা প্রকল্পের কাজে বিভিন্ন অনিয়ম দুর্নীতি হচ্ছে মর্মে এলাকাবাসীর অভিযোগ।
জিও ব্যাগ চুরির ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কুড়িগ্রাম জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাসুদুর রহমান জানান, ব্যাগ চুরির কোন প্রমান পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কড়ালগ্রাসী ব্রহ্মপুত্রের ডানতীর রক্ষা প্রকল্পের কাজ সঠিকভাবে না করা হলে প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য ভেস্তে যাবে বলে স্থানীয় সচেতন মহল ধারনা করছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ