• সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ০১:২২ পূর্বাহ্ন |

সৈয়দপুরে এমপির হস্তক্ষেপে দখল মুক্ত

ccসিসি নিউজ: ভুয়া জাল দলিল করে সৈয়দপুরে হিন্দু মারোয়ারীর বাড়ি দখলের চেষ্টা চালানো হয়েছে। পরে সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ আলহাজ্ব শওকত চৌধুরী এমপি হস্তক্ষেপ করায় দখলবাজরা দখলকৃত বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে যায়।
গত শুক্রবার শহরের সৈয়দপুর-দিনাজপুর সড়কের পপুলার ডায়াগনোস্টিক সেন্টার সংলগ্ন এলাকায় সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, সৈয়দপুর-দিনাজপুর সড়কের পপুলার ডায়াগনোস্টিক সেন্টার সংলগ্ন এলাকায় সুশিল কুমার আগরওয়ালা নামের এক হিন্দু মারোয়ারী পরিবার দীর্ঘদিন থেকে বসবাস করে আসছিল। তার মৃত্যুর পর দুই ছেলে অমিত কুমার ও সুমিত কুমার ওই বাড়িতে বসবাস করে আসছে।
দীর্ঘ দুই যুগেরও বেশী ওই বাড়িতে বৈধভাবে বসবাস করার পর গত শুক্রবার হঠাৎ সতীন্দ্র দাস নামের অপর এক ব্যক্তির সম্পাদনকৃত জাল দলিল দেখিয়ে ওই বাড়িটি দখলের চেষ্টা চালায় ক্ষমতাসীন দলের অঙ্গ সংগঠন ছাত্রলীগের সাবেক এক নেতা।
তারা ওই বাড়িতে থাকা আসবাবপত্র ভাঙচুর করে প্রধান ফটকে তালা লাগিয়ে দেয়। এ সময় বিরোধী দলীয় হুইপ আলহাজ্ব শওকত চৌধুরী এমপিকে অবগত করলে তিনি ওইদিন সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল যান। সাংসদকে দেখে দখলবাজরা পালিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে শহীদ পরিবারের সন্তান সাংবাদিক নিরঞ্জন কুমার আগারওয়ালা (নিজু) বলেন, ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনীরা দেশপ্রেমিক মুক্তিযোদ্ধাদের নির্মমভাবে হত্যা করে এবং লুটতরাজ করেছিল। আর দেশ স্বাধীন হওয়ার পর সেই শহীদ পরিবারদের বাড়ি দখল ও অত্যাচার শুরু করেছে পাক হানাদার বাহিনীর সন্তানরা। দিলনেওয়াজ খানের বিরুদ্ধে জরুরি ব্যবস্থা নিতে প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন তিনি।
এ ঘটনার ব্যাপারে নীলফামারী-৪ আসনের সাংসদ ও বিরোধী দলীয় হুইপ আলহাজ শওকত চৌধুরী বলেন, তিনি বেঁচে থাকলে হিন্দু, মারোয়ারী, বাঙালি ও বেহারীর কোন জমি বা বাড়ি অন্যায়ভাবে দখল হতে তিনি দেবেন না। যারা হিন্দু, মারোয়ারীর জমি দখল করতে গিয়েছিল তাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতায় কঠোর ব্যবস্থা নেবেন বলে তিনি মন্তব্য করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ