• মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০১:১৮ পূর্বাহ্ন |

কুমিল্লাকে বিভাগ করা হবে

Hasinaঢাকা: বাংলাদেশে আরো কয়েকটি জেলাকে বিভাগ করার পরিকল্পনা করছে সরকার। সেদিক থেকে বৃহত্তর কুমিল্লাকে আগামীতে বিভাগ করার কথা জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার বিকেলে কুমিল্লার টাউন হল মাঠে ভাষা সৈনিক রফিকুল ইসলাম মঞ্চে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী একথা জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘স্বাধীনতার পরে বাংলাদেশে মাত্র ১৯টি জেলা ছিল। জাতির পিতা প্রত্যেকটি জেলাকে সাব ডিভিশন করেছিলেন। এ কারণে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি বাংলাদেশে আরো কয়েকটি বিভাগ করব। সেদিক থেকে বৃহত্তর কুমিল্লাকেও ভবিষ্যতে বিভাগ করব।’

এসময় উপস্থিত কুমিল্লাবাসীর প্রতি প্রশ্ন রেখে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তবে প্রশ্ন থাকে- নামটা? এ বিভাগের নাম কুমিল্লা থাকবে না অন্য নাম হবে? তবে আমার একটা শর্ত আছে- কুমিল্লাবাসী কোনো কুকর্ম করবে না, সুকর্ম করবে। সব সময় যেন কুমিল্লার সুনাম থাকে।’

কুমিল্লার টাউন হল মাঠে ২৪৩ কোটি ৩৪ লাখ ৭৭ হাজার টাকার ১০টি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করা হয়। একই সঙ্গে সাতটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনও করেন প্রধানমন্ত্রী। এসময় সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘জনগণের সেবাই আমাদের লক্ষ্য। সে লক্ষ্য নিয়েই আওয়ামী লীগ কাজ করে। কাজেই আমরা এ সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে চাই।’

প্রধানমন্ত্রী কুমিল্লাবাসীর উদ্দেশে বলেন, ‘ইতোমধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম ফোর লেনের কাজ হয়ে যাচ্ছে। রেললাইন ডাবল করে দিচ্ছি। দীর্ঘদিনের দাবি কুমিল্লায় ইপিজেড আমার সরকারের আমলে ১৯৯৬ সালে করে দিয়েছিলাম। মেঘনা নদীর ভাঙনের হাত থেকে রক্ষার কাজ করেছিলাম। বহু কাজ তখনও করেছি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘শুধু কুমিল্লা নয় সারা বাংলাদেশের উন্নয়ন আমরা করছি। কাজেই সেদিকে লক্ষ্য রেখেই উন্নয়ন করবো এবং বিভাগও ইনশাল্লাহ আমরা করে দিবো।’

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের বিদ্রোহী কবিতাটির কয়েকলাইন আবৃত্তি করেন প্রধানমন্ত্রী। এসময় উপস্থিত জনতা করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানান। বিদ্রোহী কবিকে স্মারণ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘কাজী নজরুল সাম্যের গান গেয়েছেন। আমরাও সেই অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উদ্বুব্ধ হয়ে সাম্যের গান গেয়ে এদেশের মানুষের উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবো। জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত সোনার বাংলা গড়বো।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ইনশাল্লাহ আগামী ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ। আর ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে বিশ্বের উন্নত দেশ।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ