• শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন |

ইবির শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে ড. মিজানুর সভাপতি ও ড. আক্তারুল সম্পাদক

Uniসিসি ডেস্ক : কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচন-২০১৫ এর ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। এতে অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান সভাপতি এবং অধ্যাপক ড. এ এইচ এম আক্তারুল ইসলাম জিল্লু সাধারণ সম্পাদক  নির্বাচিত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ভোটগণনা শেষে এ ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্বে থাকা অধ্যাপক ড. কাজী আক্তার হোসেন।

 নির্বাচনে সভাপতি পদে বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্যানেলের অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান ১৭৭ ভোট এবং সাধারণ সম্পাদক পদে বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক প্যানেলের অধ্যাপক ড. এ এইচ এম আক্তারুল ইসলাম জিল্লু ১৫৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

 সভাপতি পদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক প্যানেলের প্রার্থী অধ্যাপক ড. আ ন ম রেজাইল করিম পেয়েছেন ১২৯ ভোট এবং সাধারণ সম্পাদক পদে বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্যানেলের অধ্যাপক ড. অলী উল্ল্যাহ পেয়েছেন ১৩৮ ভোট।

 প্রতিবারের মতো এ বছরও শিক্ষক সমিতির মোট ১৫টি পদের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্যানেলের সভাপতিসহ ১১জন প্রার্থী এবং বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক প্যানেলের সাধারণ সম্পাদকসহ চারজন প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন।

 বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক প্যানেলের সদস্য পদে নির্বাচিত অন্য শিক্ষকরা হলেন- অধ্যাপক ড. শামসুল আলম (১৫৭ ভোট), অধ্যাপক ড. এস এম মোস্তফা কামাল (১৫৫) এবং অধ্যাপক ড. মেহের আলী (১৫৫)।

 এদিকে বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্যানেল থেকে নির্বাচিত অন্য শিক্ষকরা হলেন- সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. আহসান উল্লাহ (১৫৪), যুগ্ম-সম্পাদক ড. মোস্তাফিজুর রহমান (১৫৭), কোষাধ্যক্ষ ড. মাহবুবুর রহমান (১৬১)।

 এ ছাড়া সদস্য পদে নিবার্চিত শিক্ষকরা হলেন- অধ্যাপক ড. শহীদুল ইসলাম নুরী (১৫৮), ড. ময়নুল হক (১৫১), ড. মহিব্বুল ইসলাম (১৫২), ড. মমতাজুল ইসলাম (১৫৭), ড. মিজানুর রহমান (১৬৭), ড. রেজাউল করিম (১৫৫), ড. রশিদুজ্জামান (১৫৮)।

 মোট ৩৫৯ ভোটারের মধ্যে ৩২৫ জন শিক্ষক তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এর মধ্যে ১০টি ভোট বাতিল করে নির্বাচন কমিশন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ