• রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ১২:৪৯ অপরাহ্ন |

ক্ষমতাসীনদের যোগসাজশে সাগরে ভাসছে মানুষ

Tareq-NAP-29.05.15সিসি নিউজ: ‘ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের এবং প্রশাসনের অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশেই হাজার হাজার মানুষ সাগরে ভাসছে’ বলে অভিযোগ করেছেন ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষ নেতা ও বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি।

তিনি বলেন, ‘সরকার উন্নয়নের ফিরিস্তি দিচ্ছে। আর একটু কাজের আশায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হাজার হাজার মানুষ সমুদ্রপথে পাচারকারীদের হাতে নিজেদের সঁপে দিচ্ছে। তারা ডুবে মরছে, খাবারের অভাবে মরছে, পানির অভাবে মরছে।’

নয়াপল্টন যাদু মিয়া মিলনায়তনে শুক্রবার সকালে ‘সাগরে ভাসমান ও কারাগারে আটক বাংলাদেশীদের ফিরিয়ে আনা ও মানবপাচাকারী চক্রের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে’ বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত বিক্ষোভ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

জেবেল রহমান গানি বলেন, ‘ওই সব ভাসমান ভাগ্যাহত মানুষের ঠিকানা হচ্ছে থাইল্যান্ডের জঙ্গলে, গণকবর অথবা বিভিন্ন দেশের কারাগারে। সমুদ্র-স্থল-আকাশ সব পথেই মানবপাচার ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। এ সবই ঘটছে প্রশাসনের নাকের ডগায়, ক্ষমতাসীন শাসক দলের নেতা ও প্রশাসনের অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে।’

তিনি মানবপাচারকারী সিন্ডিকেটের গডফাদারদের গ্রেফতার, বিচার এবং সাগরে ভাসমান ও বিদেশের কারাগারে আটক বাংলাদেশীদের ফিরিয়ে এনে পুনর্বাসন, পাচারের শিকার নিখোঁজ-নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের জোর দাবি জানান।

ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া বলেন, সাগরে কত মানুষ মারা গেছে তার সঠিক সংখ্যা হয়তো আমরা কোনোদিন জানতে পারব না। এটা আমাদের দুর্ভাগ্য যে, যুদ্ধজাহাজ থাকা সত্ত্বেও তাদের উদ্ধার করা হচ্ছে না। ভাসমান শ্রমিকদের উদ্ধারে সরকারের কোনো উদ্যোগ নেই।

তিনি বলেন, ‘এ শ্রমিকরা বিদেশে গিয়ে কাজ করে দেশে রেমিট্যান্স পাঠালে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর গর্ব করে বলতেন, আমরা রেকর্ড গড়েছি, এটা আমাদের অর্জন। আজ আমরা যে অবস্থানে আছি তা আপনাদের জন্য না। আমরা ভাল আছি তার কারণ অশিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত ৯০ লাখ শ্রমিক, যারা ১৭০টি দেশে কাজ করে দেশে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছে।’

নগর আহ্বায়ক সৈয়দ শাহজাহান সাজুর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মো. শহীদুন্নবী ডাবলুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- ন্যাপের যুগ্ম-মহাসচিব স্বপন কুমার সাহা, সম্পাদক মো. কামাল ভূঁইয়া, মতিয়ারা চৌধুরী মিনু, নগর যুগ্ম-আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা আনছার রহমান শিকদার, মো. আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ