• বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৩৬ অপরাহ্ন |

ভিক্ষুকমুক্ত দেশ গড়তে সরকারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে

PM-Chief Secretary Photo-Nilphamariনীলফামারী প্রতিরিধি: প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মূখ্যসচিব আবুল কালাম আজাদ বলেছেন ‘ভিক্ষুকমুক্ত বাংলাদেশ দেশ গড়তে তুলতে সরকারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এক দিনেই এই দেশকে ভিক্ষুকমুক্ত গড়া সম্ভব নয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ইতো মধ্যে দেশের বেশ কয়েকটি জেলা ও উপজেলায় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের আওতায় ভিক্ষুকদের পুর্নঃবাসিত করে তাদের সাবলম্বী করে তোলা হচ্ছে।’
শুক্রবার রাতে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলা শহরের মুশা মডেল দাখিল মাদ্রসা চত্তরে উপজেলা প্রশাসনের অয়োজনে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের আওতায় পুণঃর্বাসিত ভিক্ষুকদের সমন্বয়ে গঠিত সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমিতির সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মূখ্যসচিব আরো বলেন, ‘বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে দরিদ্র,হতদরিদ্র ও ছিন্ন মূল মানুষের জন্য কাজ করে চলেছে। এরই ধারবাহিকতায় সরকার একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের মাধ্যমে এই জনগোষ্ঠিকে বিভিন্ন আয়বদ্ধকর কাজে সম্পৃক্ত করে চলেছে। যার উধাহরণ হচ্ছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ। জেলার সবচেয়ে বেশি ভিক্ষুককের সংখ্যা এই উপজেলায় বেশি। অথচো এই এই উপজেলা সবার আগে ভিক্ষুকমুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষিত হয়েছে।’
আবুল কালাম আজাদ আরো বলেন ‘দেশকে ভিক্ষুকমুক্ত করতে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ সারা দেশে মডেল হয়ে থাকবে। বর্তমান সরকারের সহযোগীতায় ও স্থানীয় প্রশাসনের প্রচেষ্ঠায় একসময় এই উপজেলার অবহেলিত, লাঞ্চিত ও অধিকার বঞ্চিত মানুষ গুলো সাংবিধানিক মৌলিক অধিকার ফিরে পেয়েছে। চলমান সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি অচিরেই এসব পুর্নঃবাসিত মানুষগুলোর জন্য আবাসন ব্যবস্থাসহ তাদের আলোকিত নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সরকার সার্বিক সহযোগীতা প্রদান করেব। এছাড়াও দেশকে কিভাবে ভিক্ষুক মুক্ত করা যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সে পরিকল্পনা করছেন।’
জেলা প্রশাসক জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় রংপুর বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ দিলোয়ার বখ্ত, একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্প পরিচালক ড. প্রশান্ত কুমার রায় ও বিরোধী দলীয় হুইপ আলহাজ্ব শওকত চৌধুরী এমপি ও উপজেলা চেয়ারম্যান রশিদুল ইসলাম বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।
মতবিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন কিশোরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিদ্দিকুর রহমান। বক্তগন বলেন, কিশোরগঞ্জে ভিক্ষুকদের পুরনর্বাসন একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।
মতবিনিময় শেষে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে মাধ্যমে পুণঃর্বাসিত ভিক্ষুকদের বিভিন্ন কার্যক্রম পরির্দশন করেন। পুনর্বাসিত ভিক্ষুকদের বর্তমান পেশা, দিনযাপন, প্রাপ্ত সুবিধার সফলতা এবং তাদের দাবী দাওয়া শুনেন ও বাস্তবায়নের আশ্বাস দেন মূখ্যসচিব।
উল্লেখ্য ২০১৪ সালের ৫ জুলাই বর্তমান সরকারের একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের আওতায় কিশোরগঞ্জ উপজেলার ৯৫১ জন ভিক্ষুককে পুণঃর্বাসন করে ঐ উপজেলাকে ভিক্ষুকমুক্ত ঘোষনা করে উপজেলা প্রশাসন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ