• রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১০:৩৭ অপরাহ্ন |

রাকিব হত্যা মামলার আসামি মিন্টুর স্বীকারোক্তি

khulna1439377145খুলনা : খুলনায় পৈশাচিক নির্যাতনের শিকার শিশু রাকিব হত্যা মামলার দ্বিতীয় আসামি মিন্টু খান হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।

বুধবার বিকেল সোয়া ৪ টার দিকে তিনি খুলনা মহানগর হাকিম মো. ফারুক ইকবালের আদালতে এ জবানবন্দি প্রদান করেন। জবানবন্দিতে ‘রাগ এবং ক্ষোভের বসে রাকিবকে হত্যা করা হয়’ বলে তিনি উল্লেখ করেন। ৫ দিনের পুলিশি রিমান্ডে খুলনা থানায় ছিল। রিমান্ডের তৃতীয় দিনেই তিনি স্বীকারোক্তি দিলেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা খুলনা সদর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মোস্তাক আহমেদ বলেন, বুধবার রিমান্ডের তৃতীয় দিনের জিজ্ঞাসাবাদে মিন্টু খান হত্যাকাণ্ডে নিজের সম্পৃক্ততা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হন। এরপর দুপুর ২টার দিকে তাকে মহানগর হাকিম মো. ফারুক ইকবালের আদালতে হাজির করা হয়। সোয়া ২ ঘণ্টা পর সোয়া ৪টার দিকে জবানবন্দি গ্রহণ সম্পন্ন হয়।

জবানবন্দিতে মিন্টু জানান, রাকিব শরীফের গ্যারেজের কাজ ছেড়ে চলে যাওয়ায় তার ওপর রাগ ছিল। সে রাগ এবং ক্ষোভের বসেই তাকে হত্যা করা হয়।  এ ছাড়া তিনি হত্যাকান্ডের আরো বিস্তারিত বর্ণনা দিয়েছে আদালতে।

স্বীকারোক্তির পর তাকে খুলনা জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়। এর আগে মামলার প্রধান আসামি ওমর শরীফ এবং তার মা বিউটি বেগমও হত্যাকা-ের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করে। ফলে মামলার তিন আসামিই ঘটনার দায় স্বীকার করে নিল।

এর আগে গত ১০ আগস্ট খুলনার মহানগর হাকিম মো. ফারুক ইকবালের আদালতে রাকিব হত্যা মামলার প্রধান আসামি শরীফ ও সহযোগী মিন্টু খানকে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, ৩ আগস্ট বিকেলে মোটরসাইকেলের হাওয়া দেয়া কমপ্রেশার মেশিনের পাইপ দিয়ে শিশু রাকিবের পায়ুপথে ঢুকিয়ে তার পেটে হাওয়া দিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

 


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ