• সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ১০:৫৮ অপরাহ্ন |

বরফগলা পানির সঙ্গে টানা বৃষ্টি: দেশে বড় বন্যার আশঙ্কা

full_1337765503_1440223796সিসি ডেস্ক: দেশে বড় বন্যার আশঙ্কা করছে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র। পদ্মা, যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রসহ প্রধান নদীগুলোর পানি বাড়ছে। এতে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে সিরাজগঞ্জ, বগুরা, সারিয়াকান্দি, জামালপুরের বাহাদুরাবাদ, ইসলামপুরসহ ব্রহ্মপুত্র অববাহিকার একাধিক এলাকা ও পদ্মা তীরবর্তী রাজবাড়ি ও ফরিদপুরে পরিস্থিতির অবনতি হবে বলে জানিয়েছে বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্র।

দেশে সবচেয়ে বেশি পানি আসে ব্রহ্মপুত্র ও যমুনা দিয়ে। একারণে প্রতিবছরই এই দুই নদীর অববাহিকায় এ সময় বন্যা হয়। পূর্বাভাস কেন্দ্র বলছে, হিমালয়ের বরফগলা পানির সঙ্গে টানা বৃষ্টির পানি যোগ হলে দেখা দেয় বড় বন্যা। সর্বশেষ রেকর্ড বলছে, গত কদিনে ভারতের বিহার, আসাম, অরুণাচল ও পশ্চিমবঙ্গে ভারি বৃষ্টি হয়েছে। দেশেও থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে।

প্রকৌশলীরা বলছেন পদ্মা ও যমুনার সঙ্গমস্থলের মিলিত প্রবাহ আরিচা থেকে চাঁদপুর পর্যন্ত গোটা অঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতি তৈরী করবে। পূর্বাভাস অনুযায়ী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে প্লাবিত হবে রাজবাড়ি ও ফরিদপুরের বেশকিছু এলাকা।

এছাড়া, আসামে বন্যা দেখা দেয়ায় সেই পানি কুড়িগ্রাম হয়ে ব্রহ্মপুত্র দিয়ে নেমে আসবে নিচের দিকে। এ কারণে আগামী তিন দিনে উত্তরাঞ্চলেও বন্যার অবনতি ঘটবে।

অন্যদিকে চট্রগ্রাম বিভাগের ফেনী থেকে শুরু করে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সিলেট, মৌলভিবাজার, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা ও জামালপুরে বন্যা রয়েছে কদিন ধরেই। এতে একই সঙ্গে প্রধান নদীগুলোতে পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করলে, সারাদেশের পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ।

প্রকৌশলীরা বলছেন, পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ সক্ষমতা সর্বোচ্চ ১০ দিনের। শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত দেশের ১১টি পয়েন্টের পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে। এ অবস্থা চলমান থাকলে দুর্যোগের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে দেশবাসীকে। সূত্র: ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ