• শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ১০:০৪ পূর্বাহ্ন |

দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি’র জিএম এর অপসারণের দাবিতে মানব বন্ধন

Red Chilli Saidpur

Ghoraghat Pic

দিনাজপুর: দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জি.এম সহ দূর্নীতিবাজ কর্মকর্তা কর্মচারীদের অপসারণ ও প্রাক্তন ৯নং এলাকা পরিচালক খন্দকার মাহমুদুর রহমানের বিচারের দাবীতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

সোমবার ১১টায় দিনাজপুর-বগুড়া মহাসড়কে ঘোড়াঘাট উপজেলার বিরাহীমপুর এলাকায় এ মানববন্ধনের আয়োজন করে নাগরিক কমিটি।মানববন্ধনে দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর  ১০ নং এলাকা পরিচালক মিনহাজুল ইসলাম রব্বানী বলেন, আমার হার্টের বাই পাস সার্জারী করার কারনে দীর্ঘদিন ঢাকায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলাম এই সুযোগে দূর্নীতিবাজ জি.এম আব্দুর রাজ্জাক ও তার সহযোগী সাবেক পরিচালক খন্দকার মাহমুদুর রহমান এর মারফতে রাণীগঞ্জ জোনাল অফিসের আওতাধীন উপজেলার বিরাহীমপুর গারোপাড়া ও বিরাহীমপুর খামার বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার নামে প্রায় দু’লাখ টাকা উত্তোলন করে। যা মাষ্টার প্লানের নিয়ম সিরিয়াল ভঙ্গ করেন। বিষয়টি গ্রামবাসী আমাকে জানালো আমি সমিতির বোর্ড মিটিং-এ উত্থাপন করি যার কারনে জি.এম এর রসানলে পড়ি। জনৈক ব্যাক্তি আমার বিরুদ্ধে উক্ত গ্রামের টাকা উত্তোলনের দোষ চাপিয়ে দেয়। এ ব্যাপারে আমি বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎতায়ন বোর্ডের চিয়াম্যান বরাবর অভিযোগ করি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ১৬ই ফেব্রুয়ারী ২০১৬ তারিখে বোর্ডের ডিডি শাহ্্ আলম তদন্তে আসেন। তিনি প্রকৃত অপরাধীকে আড়াল করে মনগড়া তদন্ত করেন। তদন্তে উল্টো আমার উপর দোষ চাপানোর চেষ্টা করেন। তিনি স্বাক্ষীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রকৃত বিষয়টি আড়ার করার চেষ্টা করেন। মিনহাজুল ইসলাম রব্বানী জানান জি.এম সাহেব নিজেকে বাঁচানোর জন্য গত ১৮/২/১৬ইং তারিখে সমিতির নির্বাহী কমিটিতে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে সভাপতি, সচিব সহ সভাপতি কোষাধ্যক্ষ দিয়ে একটি নির্বাহী কমিটি গঠন করেন। মানব বন্ধনে দূর্নীতিবাজ জি.এম সহ কর্মকর্তা কর্মচারী দ্রুত অপসারন করে পুনরায় তদন্তের জন্য প্রধান মন্ত্রী ও বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করে এলাকাবাসী।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ