• সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ০৩:৩৭ অপরাহ্ন |

দিনাজপুর আদালতের জিপি ও পিপি রদবদল

Red Chilli Saidpur

111দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুর জেলার দেওয়ানী ও ফৌজদারী  আদালতের জিপি ও পিপিসহ (আইন কর্মকর্তা) কয়েকটি পদে রদবদল করা হয়েছে।
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ সলিসিটর অনুবিভাগ (জিপি/পিপি শাখা) বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট, ঢাকার স্মারক নং সলিসিটর/জিপি-পিপি (দিনাজপুর)-৩০/২০০৯-২১ স্মারকে সহকারী সচিব (জিপি/পিপি) মো. আব্দুছ ছালাম স্বাক্ষরিত দিনাজপুর জেলা ম্যাজিস্ট্রে ও জেলা প্রশাসক বরাবর প্রেরিত এক পত্রে জেলার দেওয়ানী ও ফৌজদারী  আদালতের জিপি ও পিপি পদে রদবদলের এই আদেশ দেয়া হয়।
ওই আদেশে বলা হয়েছে, দিনাজপুর জেলার দেওয়ানী ও ফৌজদারী আদালতসমূহে পূর্বে কর্মরত সকল আইন কর্মকর্তাদের নিয়োগ বাতিল করে নি¤œলিখিত আইনজীবীদের পেশাগত দক্ষতা, অভিজ্ঞতা ও সততা সম্পর্কে জেলা ও দায়রা জজ/ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট’র প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে তাঁদের বিপরীতে উল্লেখিত পদে নির্দেশক্রমে সাময়িকভাবে নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে।
রদবদলকৃত ও নতুন নিয়োগ পাওয়া ৬২ জন কর্মকতার মধ্যে রয়েছেন একজন জিপি, একজন পিপি, দুইজন অতিরিক্ত জিপি, দুই বিশেষ পিপি, ৩ জন অতিরিক্ত পিপি, ১৪ জন এজিপি ও ৩৯ জন এপিপি।
ওই পত্রে দিনাজপুর আদালতের বর্তমান জিপি মো. আব্দুল ওয়াহেদ নোবেলকে অব্যাহতি দিয়ে তাঁকে অনতিবিলম্বে যাবতীয় দায়িত্বভার (সকল প্রকার মামলার নথিপত্র ও সিডিসহ নবনিয়োগপ্রাপ্ত পিপি মীর মো. ইউসুফ আলীকে বুঝিয়ে দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।)
দিনাজপুর বর্তমান পিপি মো. হামিদুল ইসলামকে অব্যাহতি দিয়ে তাঁকে অনতিবিলম্বে যাবতীয় দায়িত্বভার (সকল প্রকার মামলার নথিপত্র ও সিডিসহ নবনিয়োগপ্রাপ্ত পিপি মো. আজিজুল ইসলাম জুগলুকে বুঝিয়ে দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।)
দিনাজপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বর্তমান বিশেষ পিপিকে অব্যাহতি দিয়ে তাঁকে অনতিবিলম্বে যাবতীয় দায়িত্বভার (সকল প্রকার মামলার নথিপত্র ও সিডিসহ নবনিয়োগপ্রাপ্ত বিশেষ পিপি মো. মেহবুব হাসান চৌধুরী লিটনকে বুঝিয়ে দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।)
রদবদলকৃত ও নতুন নিয়োগ পাওয়া কর্মকর্তারা হলেন-জিপি আলহাজ্ব মীর মো. ইউসুফ আলী, অতিরিক্ত পিপি মো. তাহেরুল ইসলাম, মো. তহিদুল হক সরকার ও মো. দেলোয়ার হোসেন, বিষেশ পিপি (নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল) মেহবুব হাসান চৌধুরী লিটন, বিশেষ পিপি (স্পেশাল জজ আদালত) মনজুর আহমেদ রুবেল, এপিপি মাহমুদুর রহমান বাবুল, মো. কাজেম উদ্দিন, একেএম গোলাম মুর্তুজা মুকুল, শাহ মো. মোস্তাফিজুর রহমান টুটুল, তৈয়বা বেগম, মো. আফসার হোসেন চৌধুরী বাবু, মো. আজিজুর রহমান, শাহ দরকশান এমিরাল, মোছাঃ নাসিমা আক্তার রেনু, মোছাঃ জাহানারা বেগম (মনা চৌধুরী), মো. কামরুজ্জামান শাম্স বুলবুল, শ্রী শৈলেন কান্তি রায়, মো. মেহেরুল ইসলাম, শামীম আলম সরকার, মো. সারোয়ার আহম্মেদ বাবু, মো. তোহা, এএফ মাহামুদুল ইসলাম (সাবু), এনএইচ মাহবুবুল হক (বাবু), মো. ইকবাল রায়হান সোহেল, মো. মমিনুল হক, মো. মাহবুবুর রশিদ, মো. খাদেমুল ইসলাম, মো.আতাউর রহমান আতা, মোছাঃ আঞ্জুমান আরা রুবি, মো. আনারুল ইসলাম, মো. মাহবুব সোবহানী চৌধুরী (বাবু), মো. শাহজাহান আলম, মোছাঃ সাবিনা ইয়াসসমিন কাকলী, মো. শামসুর রহমান পারভেজ, মোছাঃ মাসুদা খাতুন, মো. রবিউল ইসলাম (২), মো.আব্দুল ওয়াদুদ সরকার, মো. শফিজুর রহমান, মো. এহসানুল হক, মো. নাজমুল হক, মো. রবিউল ইসলাম (১), মো. জালাল উদ্দিন, সুধীর চন্দ্র শীল ও শ্রীমতি সাথী দাস।
জিপি আলহাজ্ব মীর মো. ইউসুফ আলী, অতিরিক্ত জিপি আলহাজ্ব মো. আব্দুস সালাম আমান, শ্রী প্রফুল্ল কুমার রায়, এজিপি মো. নুরুল ইসলাম (১), মো. মমতাজুর রহমান, শ্রী সরোজ গোপাল রায়, শ্রী উপেন্দ্র নাথ শীল, শ্রী অক্ষয় কুমার, শ্রী হরিদাস রায়, শ্রী সুবাব চন্দ্র রায়, মো. কামরুজ্জামান (২), মো. নজরুল ইসলাম, মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, মো. আব্দুল মান্নান মোল্লা (মানিক), মো. কামরুল আহসান, মো. ইসমাঈল হোসেন ও ছন্দ্র রানী রায়।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ