• বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০১:৩২ পূর্বাহ্ন |

রংপুরে শাশুড়ির আগুনে দগ্ধ গৃহবধূ

রংপুররংপুর: ‘১২ বছর ধরে অনেক নির্যাতন সহ্য করে মুখ বন্ধ করে ওই বাড়িতেই ছিলাম। দুই মেয়ে মুন্নী (১০) ও মুক্তার (৮) কথা ভেবে সবকিছু মুখ বুজে সহ্য করেছি। বিয়ের পর থেকেই আমার ওপর শারীরিক নির্যাতন চালিয়েছে শশুর বাড়ির লোকজন। শেষ পর্যন্ত শরীরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারতে চাইলো।’ কথাগুলো রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অগ্নিদগ্ধ গৃহবধূ তাহমিনার।

শনিবার হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে যন্ত্রণাকাতর অবস্থায় তাহমিনা সাংবাদিকদের কাছে আকুতি জানিয়ে শাশুড়ির শাস্তি দাবি করেন।

পারিবারিক কলহের জেরে তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়েছে শাশুড়ি। বৃহস্পতিবার রাতে জেলার পীরগাছা উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের দাদোন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই গৃহবধূকে প্রথমে পীরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে শুক্রবার সকালে রংপুর মেডিক্যালে কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ স্বামী আব্দুল মান্নানকে আটক করেছে।

রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক শাহ হাকিম আজমল হোসেন বলেন, তহমিনার শরীরের ৫০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

পীরগাছা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, পুলিশ রংপুর মেডিক্যাল থেকে মান্নানকে আটক করেছে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে এবং শাশুড়িকে গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ