• সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ১১:২৮ অপরাহ্ন |

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকে ১০ হাজার শূন্যপদে নিয়োগের সিদ্ধান্ত

Red Chilli Saidpur

ব্যাংকসিসি নিউজ: সরকারি খাতের সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী, বিডিবিএল ও বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকে প্রায় ১০ হাজার শূন্যপদে নিয়োগের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকার সিলেকশন কমিটির কাছে এসব পদে পূরণের জন্য চাহিদাপত্র দিয়েছে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলো। আগামী ছয় মাসের মধ্যে এসব পদে নিয়োগ সম্পন্ন হবে বলে মনে করছে সিলেকশন কমিটি। মঙ্গলবার দৈনিক বণিক বার্তার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোয় একসঙ্গে এত নিয়োগ এর আগে কখনো হয়নি। তাই এ নিয়ে চাকরিপ্রার্থীদের মধ্যে নতুন করে আশার সঞ্চার হয়েছে। এখন থেকে নিয়োগের সব ধরনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে বাংলাদেশ ব্যাংক। ফলে কোনো ধরনের অনিয়ম হবে না বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকার সিলেকশন কমিটির কর্মকর্তারা বলেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংক নিয়োগের সব ধরনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করায় কোনো ধরনের জালিয়াতির সুযোগ নেই। শিক্ষার্থীরা ভালো প্রস্তুতি থাকলেই ব্যাংকে যোগদানের সুযোগ পাবে। লিখিত, মৌখিক সব ধরনের পরীক্ষা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তত্ত্বাবধানে থাকায় কোনো ধরনের যোগাযোগ কাজে আসবে না।

জানা গেছে, সরকারি খাতের সব ব্যাংকেই অফিসার, অফিসার (ক্যাশ) ও সিনিয়র অফিসার পদে শূন্যতা বিরাজ করছে। এ পরিপ্রেক্ষিতে সোনালী ব্যাংকে ২২৭৬ পদে নিয়োগের লক্ষ্যে আবেদন আহ্বান করা হয়েছে। পাশাপাশি সোনালী ব্যাংকের আইটিতে ৮১২ ও ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ৪১ পদের জন্য শিগগির লিখিত পরীক্ষা শুরু হবে। অফিসার (ক্যাশ) ও সিনিয়র অফিসার পদে জনতা ব্যাংকে প্রায় ২ হাজার, রূপালী ব্যাংকে প্রায় ১৫০০, অগ্রণী ব্যাংকে প্রায় ১ হাজার, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকে প্রায় ২২০০, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকে ৪০০ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে। এছাড়া দুই পদে ১২৬ জনকে নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড। এ লক্ষ্যে এরই মধ্যে আবেদনপত্র আহ্বান করা শুরু হয়েছে।

২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে সরকারি খাতের ব্যাংকগুলোর জনবল নিয়োগের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে প্রধান করে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি গঠনের প্রজ্ঞাপন জারি করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ।

অনেক দিন ধরে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকে অনিয়ম, দুর্নীতি ও লুটপাট রোধে সৎ, যোগ্য ও মেধাবী কর্মকর্তা নিয়োগ দিতে একটি কমিটি গঠন করার দাবি জানিয়ে আসছিলেন ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা; যার পরিপ্রেক্ষিতে গঠন করা হয় ব্যাংকার সিলেকশন কমিটি।

এর পর থেকে সরকারি খাতের সোনালী, রূপালী, অগ্রণী, জনতা, বেসিক, বিডিবিএল, কৃষি, রাজশাহী কৃষি, হাউজ বিল্ডিং, আইসিবি, কর্মসংস্থান, আনসার-ভিডিডি উন্নয়ন, প্রবাসী কল্যাণ ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে জনবল নিয়োগের দায়িত্ব পালন করছে এ কমিটি।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ