• সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ১১:১৫ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
খানসামায় ডলার প্রতারক চক্রের হোতা পুলিশের এএসআই জনতার হাতে আটক সৈয়দপুরে পূর্ব শক্রতার জেরে যুবককে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ ট্রেনের ভাড়া বাড়ানো হতে পারে : রেলমন্ত্রী জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে জাপার দুইদিনের কর্মসূচি প্রেমিকাকে রেললাইনের ধারে দাঁড় করিয়ে ট্রেনের নিচে প্রেমিকের ঝাপ ফুলবাড়ীতে কোরিয়ান মেডিকেল টিমের ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প উদ্বোধন বিয়ের দাবিতে চাচার বাড়িতে ভাতিজির অনশন সৈয়দপুর খাদ্য গুদাম শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার খানসামায় ট্রাক ও পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১ পাঁচ বছরেও শেষ হয়নি ১৭৫ মিটার সেতুর কাজ: ভোগান্তি লক্ষাধিক মানুষের

পীরগঞ্জ নির্বাচনে বিজয়ী ও পরাজিত সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ

সংঘর্ষপীরগঞ্জ (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি: ঠাকুরগাও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলায় ৭নং হাজীপুর ইউনিয়নে গত শনিবার ইউ’পি নির্বাচনে জাপা প্রার্থী সিদ্দিকুর রহমান (বিজয়ী) ও আ’লীগ প্রার্থী জয়নাল আবেদীন (পরাজিত) হলে উভয়ের মধ্যে উক্ত দিন ধরে ছিটেফটা মারপিটের ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে এলাকায় উক্ত দিন থেকে পরিবেশ উত্তপ্ত থাকে। মঙ্গলবার বিজয়ী প্রার্থী ও তার লোকজন দুপুরের দিকে সাটিয়া এলাকায় বিজয় মিছিল ও আনন্দ উল্লাস করে। এক পর্যায়ে সাবেক ইউ’পি চেয়ারম্যানের বাড়ির পাশ দিয়ে মিছিলটি প্রদক্ষিণের সময় উভয় প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। তাৎক্ষণিক বিজয়ী প্রার্থী ও পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে বিষয়টি জানাজানি হলে ঘটনাটি ব্যাপক আকার ধারণ করে।  এ নিয়ে কয়েক ঘন্টা ব্যাপি সংঘর্ষ চলা কালে উভয়ের পক্ষের প্রায় শতাধিক লোকজন গুরুতর আহত হয়। আহতদের মধ্যে ৫৬ জনকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সে ভর্তি করা হয় এবং এদের মধ্যে গুরুতর ৪ জনকে অন্যত্রে রেফার্ড করে। খোজ নিয়ে জানা যায় উপজেলার ৭নং হাজীপুর ইউনিয়নের জাপা’র নবনির্বাচিত ইউ’পি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান তার নেতা কর্মীদের পরামর্শে মঙ্গলবার বিজয় মিছিল বের করার জন্য বিভিন্ন এলাকা থেকে লোক জমায়েত করেন। দুপুর ১টায় কয়েক’শ সমর্থকদের নিয়ে বিজয় র‌্যালী বের করেন। বিজয় মিছিল দহগা গ্রামের পাকা সড়কের কাছে পৌঁছা মাত্রই পরাজিত জয়নাল আবেদীনের লোকজন মিছিলটিতে বাধা প্রদান করে। ফলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। ওই সময় সুয়োগ সন্ধানি কিছু দুর্বৃত্তরা  এলকার কয়েকটি বাড়িতে ভাংচুর ও হামলা চালায়।  এতে উভয়ের মধ্যে শতাধিক ব্যাক্তি গুরুতর আহত ও জখম হয়। এদের মধ্যে কামরুজ্জামান, লুৎফর রহমান, পবেদা খাতুন ও রিপু আক্তারকে মুমুর্ষ অবস্থায় অন্যত্র মেডিকেলে রেফার্ড করে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম ইফতেখারুল ইসলাম খন্দকার, থানা পুলিশ ও ঠাকুরগাঁও থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থালে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। বর্তমানে ঐ ইউনিয়নের লোকজন মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ