• শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৮ অপরাহ্ন |

খানসামায় দুই ঘন্টার জন্য ইউএনও’র দায়িত্বে একাদশ শ্রেনির ছাত্রী

খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের খানসামায় দুই ঘণ্টা ব্যাপি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ভূমিকা পালন করলেন কলেজ শিক্ষার্থী তাহরিমা আক্তার জিমি। একইসাথে উপজেলার ৬ নং ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে লতিকা রানী দায়িত্ব পালন করেছেন।

বুধবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ইউএনও হিসেবে গোয়ালডিহি তেলিপাড়ার জয়নাল আবেদীনের মেয়ে তাহরিমা আক্তার জিমি (১৭) এবং দুবলিয়া যতিন মাস্টারপাড়া নরেশ চন্দ্র রায়ের মেয়ে লতিকা রানী (১৮) গোয়ালডিহি ইউপি কার্যালয়ে বসে চেয়াম্যানের ভূমিকায় দৈনন্দিন রুটিন মাফিক কার্য পরিচালনা করেন।

তারা সকাল ৯ টায় স্ব-স্ব কার্যালয়ে উপস্থিত হন এবং আসন গ্রহণ করে দুই ঘণ্টা ব্যাপী তাদের উপর দায়িত্ব পালন করেন। ইউএনও’র ভূমিকায় তাহরিমা প্রতিদিনের কাজের অংশ হিসেবে গণশুনানী করেন। তিনি এসময় মনোযোগ সহকারে বাদী-বিবাদীর বক্তব্য শোনেন এবং সেই মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহন করেন।

বে-সরকারী উন্নয়ন সংস্থা প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কারিগরি সহযোগিতায় স্থানীয় উন্নয়ন সংস্থা সমাজ উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র’র বাস্তবায়নে গার্লস টেকওভার বৈশ্বিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এটি অনুষ্ঠিত হয়। প্রোগ্রামটি ২০১৬ সাল থেকে প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের গার্লস টেকওভার প্রকল্পর আওতায় পরিচালিত হয়ে আসছে। নারী নেতৃত্বের ভূমিকায় শিশুদের অংশগ্রহণে এ প্রোগ্রামকে সফল করতে খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজেবুর রহমান এবং গোয়ালডিহি ইউপি চেয়ারম্যান আইনুল হক শাহ বিশেষ ভূমিকা পালন করেন।

এ কর্মসূচির মাধ্যমে একজন কিশোরী বর্তমান বিশ্বে নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভুমিকা পালন করতে সহায়তা করা হয়। আগামী দিনে নেতৃত্বদানকারী শিশুদের মনে একটি দক্ষ নেতৃত্বের স্বপ্ন তৈরি হয় এবং চলার পথে আত্মবিশ্বাস বাড়ায়। এর ফলে তারা অঙ্গীকারাবদ্ধ হবে এবং ভবিষ্যতে দক্ষতার সাথে পেশাগত দায়িত্ব পালনে ব্রতী হয়।

এ সময় প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ দিনাজপুর প্রোগ্রাম ইউনিট ম্যানেজার আব্দুল মান্নান, প্রকল্প সমন্বয়কারী আসমা আনোয়ার, সহযোগী সংস্থা এসইউপিকে’র নির্বাহী পরিচালক মো. মোজাফ্ফর হোসেন ও প্রকল্প সম্বন্বয়কারী জাভেদ আহম্মেদ উপস্থিত ছিলেন।এদিকে চলতি মাসে চিরিরবন্দরে উপজেলা নিবার্হী অফিসার হিসেবে খোচনা গ্রামের লংকেশ্বর রায়ের মেয়ে শক্তি রায় (১৮) এবং প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের দিনাজপুর প্রোগ্রাম ইউনিট ম্যানেজারের ভূমিকায় চিরিরবন্দরের আন্ধারমুহা গ্রামের কামিনী কান্ত রায়ের মেয়ে কেয়া ঘোষ (১৬) দায়িত্ব পালন করবেন বলে প্রস্তুতি চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ