• রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১০:৪৪ অপরাহ্ন |

জেএসসির তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ের প্রশ্নফাঁস

সিসি ডেস্ক, ০৮ নভেম্বর: জেএসসির তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ের প্রশ্নফাঁস হয়েছে। পরীক্ষা শুরুর দেড় ঘণ্টা আগে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, ফেসবুকে প্রশ্নের প্রথমপাতা আপলোড করা হয়। যা মূল প্রশ্নের সঙ্গে হুবহু মিলে গেছে। তবে, ঢাকা শিক্ষা বোর্ড প্রশ্নফাঁসের ঘটনা অস্বীকার করে একে গুজব বলছে। এর সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বোর্ড চেয়ারম্যান।
জেএসসির তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের প্রশ্ন পরীক্ষা শুরুর দেড় ঘণ্টা আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।
জেএসসি এক্সাম কোয়েশ্চেন নামক একটি পেইজে তা আপলোড করা হয়। সেখানে প্রশ্নের প্রথম পাতা দিয়ে একটি ফোন নম্বর দেয়া হয়।
আর পুরো প্রশ্ন পেতে ওই নম্বরে ফোন করতে বলা হয়। পরীক্ষা শেষে দেখা যায় ফাঁস হওয়া প্রশ্নের সঙ্গে মূল প্রশ্ন হুবহু মিলে যাচ্ছে।
এরআগে, মঙ্গলবার ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা এবং ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের প্রশ্নও একই কায়দায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগে ফাঁসের অভিযোগ ওঠে।
তবে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ অস্বীকার করছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা, বিটিআরসিকে চিঠি দিয়েছে শিক্ষাবোর্ড। গোয়েন্দাসংস্থাগুলো জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে।
শিক্ষাবিদরা বলছেন, প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে শিক্ষামন্ত্রণালয় ব্যর্থ হচ্ছে। গত বছর ঢাকা বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছিলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হোয়াটস অ্যাপে। তারও আগের বছর এইচএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস হয়েছিল ফেসবুকে। উৎস: ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ