হকিং কেন নোবেল পান নি!

 
 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: স্যার আলবার্ট আইনস্টাইনের পর সবচেয়ে সফল বিজ্ঞানীদের অন্যতম প্রফেসর স্টিফেন হকিং। তিনি বিজ্ঞানে কালজয়ী সব থিওরি বা তত্ত্বের অবতারণা করেছেন। তাকে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বেসামরিক পদক প্রেসিডেন্সিয়াল মেডেল পরিয়ে দিয়েছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। কিন্তু তাকে দেয়া হয় নি নোবেল পুরস্কার। এমনকি ‘ব্ল্যাক হোলও মরতে পারে’ এমন তত্ত্ব দেয়ার পরও তিনি কোনো নোবেল পুরস্কার পান নি। কিন্তু কেন? এ প্রশ্ন সামনে আসা স্বাভাবিক।

স্টিফেন হকিংয়ের ‘ব্ল্যাক হোলসও মরতে পারে’ তত্ত্ব এখন থিওরিটিক্যাল পদার্থবিজ্ঞানে ব্যাপকভাবে মেনে নেয়া হয়েছে। তবে তার এই তত্ত্বটি যাচাই করার কোনো উপায় নেই। ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক ম্যাগাজিনে ‘দ্য সায়েন্স অব লিবার্টি’ বইয়ের লেখক টিমোথি ফেরিস এমন কথা লিখেছেন। তিনি লিখেছেন, স্টিফেন হকিং নোবেল পুরস্কার পেতেন, যদি তার তত্ত্বকে প্রমাণ করা যেতো। অথবা চোখের সামনে দেখানো যেতো যে ব্ল্যাক হোল মারা যাচ্ছে। কিন্তু এই ব্ল্যাক হোলসের মৃত্যু তো হবে না আরো কয়েক শত কোটি বছরেও। প্রথমে একটি ব্ল্যাকহোল বিস্ফোরিত হতে এই সময়ের প্রয়োজন। একই রকম কারণে ২০১৩ সালের আগে হিগস বোসন তত্ত্বের প্রবক্তা পিটার হিগস নোবেল পুরস্কার পান নি। তাকে অপেক্ষা করতে হয়েছে দীর্ঘ সময়। ইউরোপীয় গবেষণা প্রতিষ্ঠান সার্ন এক পর্যায়ে ঘোষণা দেয় যে, হিগস বোসোন কণা প্রত্যক্ষ করা হয়েছে। এরপরের বছরেই ২০১৩ সালে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার জেতেন পিটার হিগস ও ফ্রাঁসোয়া এঙ্গলার্ট।

Print Friendly, PDF & Email