• মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:২৯ অপরাহ্ন |

বাড়ির ভেতরে অন্যরকম মানুষ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সিসি ডেস্ক, ১৭ জুন: দিনভর রঙবেরঙের পাখির কূজনে মেতে থাকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁনের বাসভবন। পশুপাখি পোষার শখটি বহুদিনের কঠিন-কঠোর মন্ত্রিত্বের দায়িত্বের মাঝেও তাতে ভাটা পড়েনি। বরং টানা ব্যস্ততার ফাঁকে এই শখের পশুপাখিরাই বুলিয়ে দেয় ভালোলাগার পরশ।
সারা দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির দেখভাল করার কঠিন দায়িত্ব তার কাঁধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সামলাতে টানা ব্যস্ততা। আর সেই সঙ্গে রয়েছে জনপ্রতিনিধি হিসেবে সংসদীয় এলাকার নানান সমস্যা সমাধানের চাপ। সচরাচর গণমাধ্যমের সামনে তাকে দেখা যায়, গুম, খুন, সন্ত্রাস, জঙ্গি মোকাবেলার মতো শক্ত বিষয়ে কথা বলতে। তবে এর বাইরে বাড়ির ভেতরে একেবারেই অন্যরকমের এক মানুষ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন।
আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে গুরুগম্ভীর কথা বলতে অভ্যস্ত আসাদুজ্জামান খাঁনেরও রয়েছে নিজস্ব শখ। ব্যস্ততার মাঝে খানিকটা অবসরের প্রায় পুরোটাই কাটে এই শখ পূরণে।
ধানমন্ডির সুবুজে ঢাকা বাড়িটিতে সকাল হয় পাখির ডাকে। রয়েছে নানান ফুল আর ফলের গাছ। আর এই সবুজের মাঝে বাড়তি সৌন্দর্য ছড়ায় নানা জাতের পাখি।
পাখিরাও ভালোবাসে মালিককে। দুই জোড়া ম্যাকাও ডানা মেলে স্বাগত জানায় তাকে। গেইট দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর গাড়ি ঢোকামাত্র শুরু হয় আরো নানান পাখির কিচিরমিচির। ক্লান্তি ভুলে তাদের খাঁচার পাশে দাঁড়ান এ সময়ের অন্যতম ব্যস্ত মন্ত্রী।
সম্প্রতি জোড়া ডিম দিয়েছে ম্যাকাও। এগুলোর পরিচর্যা নিয়ে বেশ চিন্তিত মন্ত্রী। এর আগেও একবার ডিম দিয়েছিলো ম্যাকাও, কিন্তু সঠিক যত্নের অভাবে বাচ্চা ফোটেনি। পাখির পরিচর্যায় খুব বেশি সময় দিতে পারেন না বলে সে দায়িত্ব এখন বর্তেছে সহধর্মিণীর ওপর।
ভিনদেশি ম্যাকাও, ককাটেলের পাশাপাশি বিলুপ্তপ্রায় দেশীয় পাখির সংগ্রহও আছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সরকারি বাড়িতে। আছে ময়ূর, বানরও। বৈধ অনুমতির এই সংগ্রহ আরো বাড়াতে বানিয়েছেন নতুন বেশকিছু খাঁচা। শিগগিরই সেখানে আসবে আরো নতুন পশুপাখি।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ