গ্রাহকের টাকা নিয়ে লাপাত্তা ব্র্যাক কর্মকর্তা

 
 

রাজবাড়ী, ০৫ নভেম্বর।। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি থেকে গ্রাহকের প্রায় সোয়া আট লক্ষাধিক টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে মহাসিন আলম (২৯) নামে ব্র্যাকের এক কর্মকর্তা। সে উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের ইলিশকোল ব্র্যাক অফিসের ক্রেডিট অফিসার (প্রগতি)।

ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে সোমবার দুপুরে মহাসিনের স্ত্রী তানিয়া বেগমকে (২৮) আটক করেছে পুলিশ। বিকালে আদালতের মাধ্যমে কোলের শিশুসন্তানসহ তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ইলিশকোল ব্র্যাক অফিসের এরিয়া ম্যানেজার হুমায়ুন কবীর (৩৭) বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় মহাসিন আলম ছাড়াও তার বাবা ফজর আলী সানা, স্ত্রী তানিয়া বেগম এবং চাচাতো ভাই মনিরুজ্জামান মনিকে (৩৫) ওই মামলার আসামি করা হয়েছে।

ইলিশকোল ব্র্যাক অফিসের এরিয়া ম্যানেজার হুমায়ুন কবীর জানান, মহাসিন আলম তার অফিসের ক্রেডিট অফিসার (প্রগতি) হিসেবে কর্মরত ছিল। এলাকার বিভিন্ন গ্রাহকের কাছ থেকে তিনি ৮ লাখ ২৪ হাজার ৪০০ টাকা আদায় করে অফিসে জমা না দিয়ে নিজের কাছে গচ্ছিত রাখে। সে মোটর সাইকেল কেনার জন্য অফিস থেকে দেড় লাখ টাকা ঋণও নিয়েছে। এই দেড় লাখ টাকা আর গ্রাহকের টাকাসহ সর্বমোট নয় লাখ ৭৮ হাজার ৪০০ টাকা নিয়ে সে গত ২৯ অক্টোবর দুপুরে কাউকে কিছু না বলে আত্মগোপন করে। তারপর থেকেই তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

বালিয়াকান্দি থানার এসআই রেজাউল করিম জানান, ইলিশকোল ব্র্যাক অফিসের ক্রেডিট অফিসার মহাসিন আলমের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের ঘটনায় মামলা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মহাসিন আলমের স্ত্রী তানিয়া বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

 
 
 
 
 
 
 
Mature Webcam Live Cams Telegraph Theme