সোশ্যাল মিডিয়ায় নির্বাচনী প্রচারণা

 
 

সিসি ডেস্ক, ২২ নভেম্বর।। নির্বাচনী প্রচারণামূলক পোস্টার-ব্যানার, ফেস্টুন-প্লাকার্ড দেয়াল বা অন্যান্য স্থান থেকে নামিয়ে ফেলা হলেও প্রচারণা চলছে ইউটিউব, ফেসবুক, টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

তবে নির্বাচনী আচরণবিধিতে এ নিয়ে কোনো নির্দেশনা না থাকায় সম্ভাব্য প্রার্থীর ছবি, প্রতীক, রাজনৈতিক সংগঠনের প্রচারণা চলছে ঝড়ো হাওয়া গতিতে। নিয়ন্ত্রণহীনতার কারণে এর অপব্যবহারের শঙ্কা থাকলেও ইতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন সবাই।

নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী রংপুর-দিনাজপুর অঞ্চলে নির্বাচনী প্রচারণামূলক পোস্টার-ব্যানার, ফেস্টুন-প্ল্যাকার্ড দেয়াল বা অন্যান্য স্থান থেকে নামিয়ে ফেলা হয়েছে।

কিন্তু জনপ্রিয় হয়ে ওঠা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইউটিউব বা ফেসবুকের দেয়ালে রয়ে গেছে প্রচারণামূলক লাখ লাখ পোস্ট। এ নিয়ে নির্বাচনী আচরণবিধিতে নির্দেশনা না থাকায় অপব্যবহারের আশঙ্কা করছেন অনেকে।

তবে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী বলছে, বিষয়টা সঠিকভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

রংপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা সাহাতাব হোসেন বলেন, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে নির্বাচনী আচরণবিধি ভাঙার অভিযোগ আসলে বিধি অনুযায়ী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

তবে এসব যোগাযোগ মাধ্যম প্রতিপক্ষ প্রার্থীর চরিত্র হরণের উদ্দেশ্যে ব্যবহার হলে আইসিটি অ্যাক্টে সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি বা পক্ষ প্রতিকার পাবেন বলে জানান আরপিএমপি কমিশনার।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আলিমউদ্দিন মাহমুদ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ পাওয়া গেলে আমাদের পক্ষ থেকে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে র‌্যাব-১৩’র প্রধান মোজাম্মেল হোসেন বলেন, সরকারি সংস্থা কিংবা ব্যক্তির চরিত্রহননকারী কোনো পোস্ট কেউ দিলে এবং তার অভিযোগ পেলে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

Print Friendly, PDF & Email

 
 
 
 
 
 
 
 

error: Content is protected !!