CC News

নীলফামারীতে শিক্ষকগন মানছেন না নির্বাচনী আচরনবিধি

 
 

সিসি নিউজ, ০৪ ডিসেম্বর।। নীলফামারী-০১ আসনের মাধ্যমিক, কলেজ, প্রাথমিক কিংবা কোন পর্যায়েরই শিক্ষকগন নির্বাচনী আচরনবিধি মানছেন না। তফসিল ঘোষনার পর পরই শিক্ষকগন জড়িয়ে গেছে কোন না কোন প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারনায়। যেন বিষয়টি দেখার কেউ নেই।

২৭ শে নভেম্বর শিক্ষা মন্ত্রনালয় কতৃক (মাউশি) কতৃক জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, কোন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক বা কর্মচারী কোন প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারনায় ব্যাবহৃত হতে পারবেন না। মাউশি’র এ আদেশ উপেক্ষিত এ আসনে।

জানা যায়, এ দুই উপজেলার সকল স্তরের অধিকাংশ শিক্ষকগন কোন না কোন রাজনৈতিক দলের নেতা, কর্মী কিংবা সমর্থক। জেলার ডোমার উপজেলার শহীদ জিয়া নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী, মটুকপুর ভোকেশনাল স্কুলের সহকারী শিক্ষক ডোমার উপজেলা যুবদলের সভাপতি ইফতেখারুল ইসলাম তিতুমীর, সাহেবপাড়া পলিটেকনিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডোমার উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ন সম্পাদক শফিউল বারী বুলবুল, গোমনাতী ডিগ্রি কলেজের অফিস সহকারী গোমনাতী ইউপি যুবদলের সভাপতি রাকিবুল হাসান বাবু, ডোমার উপজেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক কারেঙ্গাতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রেজাউল করিম, ডোমার উপজেলা যুবদলের সহ-সভাপতি মটুকপুর স্কুল এ্যান্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক রায়হানুল করিম, ডিমলা উপজেলা যুবদলের সভাপতি ডিমলা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক গোলাম রব্বানী নির্বাচনী মাঠে রয়েছে সরব উপস্থিতি।

এ সকল নেতারা নির্বাচনী মনোনয়ন ক্রয়, জমাদান, যাচাই বাছাই, ভোটের কমিটি গঠন সহ সকল কর্মকান্ডে জড়িয়ে রয়েছে। এমনকি ভোটের ক্যাম্পেইন সহ প্রার্থীর ডানে বায়ে এরাই সব সময়ের সারথী। এ ছাড়াও অসংখ্য শিক্ষক, কর্মচারী জড়িয়ে রয়েছে প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারনায়। যা নিয়ে এলাকায় নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। অনেকেরই প্রশ্ন এসব শিক্ষকরাই আবার ভোট গ্রহনের দায়িত্বে থাকবেন।

এ ব্যাপারে ডোমার উপজেলা মাধ্যেমিক শিক্ষা অফিসার শাকেরিনা বেগম সাংবাদিকদের জানান, শিক্ষকদের নির্বাচনী প্রচারনার বিষয়টি তিনি জানেন না এর বেশী তিনি বলতে রাজী হননি।

তবে নীলফামারী জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা নাজিয়া শিরিন এ প্রসঙ্গে বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email