• রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০৮:১৫ পূর্বাহ্ন |

নির্বাচনে বড় জয় পাবে আওয়ামী লীগ: ইআইইউ

সিসি ডেস্ক, ১৩ ডিসেম্বর।। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় সংসদের সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জয়লাভ করবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ইকোনোমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (ইআইইউ)।

গত ৪ ডিসেম্বর ইআইইউ প্রকাশিত বাংলাদেশ বিষয়ক প্রতিবেদনে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বড় অবদান রাখার জন্য বাংলাদেশের মানুষ আবারো আওয়ামী লীগকে নির্বাচিত করবে বলে বলা হয়।

প্রতিবেদনে দেয়া পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে এবং ২০১৮-১৯ থেকে ২০২২-২৩ অর্থবছরে বাংলাদেশের জিডিপি বেড়ে গড়ে ৭ দশমিক ৭ করে থাকবে। ব্যক্তিগত উদ্যোগ এবং সার্বিক বিনিয়োগে স্থিতি অবস্থা থাকবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্থানীয় বেশ কিছু মতামত জরিপে শেখ হাসিনা এখন পর্যন্ত দেশের সবচাইতে জনপ্রিয় নেতা। আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে অসাধারণ অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি নির্বাচনী প্রচারে বিরোধীদল পিছিয়ে রয়েছে। আর সে কারণেই বিএনপি বা আরো বড় পরিসরে দেখলে ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে বড় ভূমিকা রাখতে ব্যর্থ হচ্ছে।

ইআইইউ ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয়ের পূর্বাভাষ দিলেও আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকারের বর্তমান মেয়াদের বাকি সময় এবং আগামী সরকারের জন্য রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার ঝুঁকির প্রসঙ্গটি উল্লেখ করেছে।

নির্বাচনী প্রচারের সময় জঙ্গি হামলাকে এ মুহূর্তে সবচেয়ে আশু ঝুঁকি বলে মনে করা হচ্ছে। জঙ্গি হামলার সাম্প্রতিক অপচেষ্টা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সফলভাবে রুখে দিতে সক্ষম হলেও যেকোনো ধরনের সন্ত্রাসী ঘটনা বেড়ে যাওয়া ব্যাপকতর রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা উসকে দিতে পারে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

ইআইইউর প্রতিবেদনে আশঙ্কা করা হয়েছে, আগামী পাঁচ বছরের মধ্য বাংলাদেশে থাকা বিদেশিদের ওপর হামলা-আক্রমণ বাড়তে পারে।

২০১৯ থেকে ২০২৩ পর্যন্ত সময়ে বাংলাদেশের যে ভবিষ্যত ইআইইউ দেখতে পাচ্ছে, তাতে সন্ত্রাসী হামলা, বিরোধী দলের আন্দোলন এবং জনতার বিক্ষোভের কারণে রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হওয়ার আভাসের কথা রয়েছে।

এতে বলা হয়, বিদেশি বিনিয়োগ বৃদ্ধি ও ব্যক্তিগত খাতে উদ্যোক্তা সৃষ্টি এবং অর্থনীতিতে তাদের ভূমিকা রাখার ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের আরো একবার নির্বাচনে জয়ী হওয়া আবশ্যক। এ নির্বাচনে জয়ের মাধ্যমে কৌশলগতভাবে বঙ্গোপসাগরের গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ তার নিকটতম প্রতিবেশী ভারত, চীন ও জাপানের সহায়তায় অর্থনৈতিকভাবে আরো সমৃদ্ধ হয়ে উঠবে।

এতে আরও বলা হয়, রোহিঙ্গা ইস্যুর কারণে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়েন অব্যাহত থাকতে পারে।

বাংলাদেশ বিষয়ে প্রকাশিত সর্বশেষ কান্ট্রি ব্রিফিংয়ে ইকোনমিস্ট গ্রুপের এই গবেষণা উইংয়ের পক্ষ থেকে ২০১৯ থেকে ২০২৩ পর্যন্ত পাঁচ বছর সময়ে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ অবস্থা কেমন, তার একটি বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে। ইকোনমিস্ট গ্রুপের এই গবেষণা ও বিশ্লেষণ বিভাগের প্রতিষ্ঠা হয় ১৯৪৬ সালে। ৭২ বছর ধরে ইআইইউ নামে পরিচিত বিভাগটি বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশ, সংস্থা ও বিষয়-ভিত্তিক গবেষণাধর্মী প্রতিবেদন প্রকাশ করে আসছে।

ইআইইউ’এর প্রতিবেদনের মতোই ওয়াশিংটনভিত্তিক রিপাবলিকান ইন্সটিটিউটের প্রতিবেদনেও আওয়ামী লীগকে এগিয়ে রাখা হয়েছে।

চলতি বছরের ১০ এপ্রিল থেকে ২১ মে’র মধ্যে পরিচালিত ওই জরিপে বলা হয়, বাংলাদেশের ৬৬ ভাগ মানুষ সমর্থন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি এবং ৬৪ ভাগ জনগণ এখনো সমর্থন করছে আওয়ামী লীগকে।

এতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনীতি আশানুরূপভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। ৬২ শতাংশ নাগরিক মনে করেন অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় দেশ সঠিক পথে আছে। অর্থনৈতিক উন্নয়নে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন ৬৯ ভাগ নাগরিক।

এর আগে ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে করা ইন্ডিপেন্ডেন্ট এবং রিসার্চ ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের (আরডিসি) গবেষণা প্রতিবেদনেও বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে দেশ সঠিক পথে এগিয়ে যাচ্ছে এবং জীবনমানের উন্নয়ন হচ্ছে বলে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন দেশের অধিকাংশ নাগরিক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ