নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না লুনার

 
 

ঢাকা, ১৮ ডিসেম্বর।। সিলেট-২ আসনে বিএনপির প্রার্থী ‘নিখোঁজ’ ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশনের দেয়া সিদ্ধান্ত স্থগিত করে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

হাইকোর্টের প্রার্থিতা বাতিলের আদেশ স্থগিত চেয়ে লুনার করা আবেদনের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ ‘নো অর্ডার’ আদেশ দেন।

এর ফলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আর প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা হচ্ছে না ইলিয়াসপত্নীর।

আদালতে তাহসিনা রুশদীর লুনার পক্ষে শুনানি করেন সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ এফ হাসান আরিফ।

আর রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মফিকুল ইসলাম বাবুল। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

একই আসনে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির প্রার্থী ইয়াহহিয়া চৌধুরীর করা এক রিট পিটিশনের শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার লুনার প্রার্থিতা বাতিলের আদেশ দেন বিচারপতি জেবিএম হাসানের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ।

আদালতে করা রিট আবেদনে ইয়াহহিয়া চৌধুরী বলেন, আরপিও অনুযায়ী সরকারি চাকরি থেকে অবসর নেয়ার তিন বছর পর সংসদ সদস্য পদে প্রার্থী হওয়ার বিধান থাকলেও তাহসিনা রুশদীর লুনা ৬ মাস আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার পদ থেকে অব্যাহতি নেন।

তাই আরপিও অনুযায়ী, লুনার প্রার্থিতা অবৈধ দাবি করে নির্বাচন কমিশনে আবেদন করেন ইয়াহহিয়া চৌধুরীর আইনজীবী। নির্বাচন কমিশন লুনার প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করেন।

নির্বাচন কমিশনের এই সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হাইকোর্টে রিট করেন ইয়াহহিয়া চৌধুরী।

শুনানি শেষে বিচারপতি জেবিএম হাসানের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ তাহসিনা রুশদীর লুনার প্রার্থিতা স্থগিতের আদেশ দেন।

আজ হাইকোর্টের আদেশের পরে আইনজীবী মোতাহার হোসেন সাজু বলেন, আদালত লুনার মনোনয়ন তিনমাসের জন্য স্থগিত করেছেন। ফলে তিনি আর নির্বাচন করতে পারছেন না।

Print Friendly, PDF & Email