দুই জেলা প্রশাসককে হুমকি দিয়ে চিঠি

 
 

সিসি ডেস্ক, ২১ ডিসেম্বর।। ফরিদপুর ও মাদারীপুরের জেলা প্রশাসককে হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ফরিদপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা উম্মে সালমা তানজিয়া জানিয়েছেন, নাম ঠিকানাবিহীন এক পাতার চিঠিতে তাকে ও তার পরিবারকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে। বুধবার দুপুরে তার অফিসের ঠিকানায় চিঠিটি পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে, মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম একইরকম চিঠি পাওয়ার তথ্য নিশ্চিত করে জানান, চিঠিটি তিনি বুধবার সন্ধ্যায় পেয়েছেন।

ফরিদপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, বুধবার অফিসে চিঠির ডাক এসেছিল। তার সঙ্গে একটি চিঠির খাম আসে। এতে লাল কালিতে লেখা ছিল ‘অতীব গোপনীয়’ বিষয়। আরো লেখা ছিল, নির্বাচনে নিরপেক্ষতা বজায় না রাখলে আমাকে ও আমার পরিবারকে দেখে নেয়া হবে। চিঠিটি হাতে লেখা ছিল, তবে এতে কারো নাম লেখা ছিল না।

হুমকি দেয়া চিঠিতে লেখা হয়েছে :

‘জনাব, আপনি আমাদের সালাম গ্রহণ করুন। আশাকরি ভালো থাকবেন। তবে বর্তমান সময়ে আপনার সকল কার্যকলাপ, তৎপরতা আপত্তিকর, পক্ষপাত দুষ্টে দৃষ্ট। আপনি কি প্রজাতন্ত্রের?? আওয়ামী লীগের কর্মী??

আপনারা হয়ত: সব খবর রাখেন না?? নির্বাচনের আগে পরে কিছু তো হবে। কেউ বসে নাই তাই আপনার প্রতি অনুরোধ আগামী ৩ দিনের মধ্যে ১০০% নিরপেক্ষ হয়ে যান। হতে হবে। অন্যথায় অ্যাকশন:- আপনার পরিবার, পরিজন, আত্মীয়-স্বজন, স্থাবর অস্থাবর সকল স্বার্থের ওপর চরমভাবে আঘাত করা হবে। এবার কৌশল পরিবর্তন-যেখানেই পাওয়া যাবে সেখানেই আক্রান্ত করা হইবে। এবার আপনারাই টার্গেট এবার আর ছাড় দেয়া হবে না।

আপনার প্রতিষ্ঠানের তৎপরতা মনিটর হচ্ছে। আপনার অপরাধ দিন দিন ভারী হচ্ছে। তাই টার্গেট থেকে বাদ পড়তে ১০০% নিরপেক্ষতা প্রমাণ করুন। অন্যথায়: অ্যাকশন।

চলমান-’

উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, চিঠির শেষে কারো নাম লেখা ছিল না। শুধু লেখা ছিল ‘চলমান’। এর অর্থ হতে পারে তারা আবারো এ বিষয়ে হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠাতে চায়।

তিনি বলেন, ডিভিশনাল কমিশনার, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশন সচিব, পুলিশের ডিভিশনাল আইজি এবং গোয়েন্দা বিভাগকে আমি বিষয়টি লিখিত আকারে জানিয়েছি। অতীতেও বিভিন্ন কারণে এমন চিঠি আমরা পেয়েছি। তাই এতে আমি ভীত নই। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আমার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

এদিকে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলামও একই রকম চিঠিটি পেয়ে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করেছেন।

এদিকে, চিঠি দুটো দেখে বোঝা গেছে, উভয় চিঠির বক্তব্য এক এবং একই ব্যক্তির হাতে লেখা।

একটি গোয়েন্দা সংস্থার ধারণা, নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করার কারণে দেশের বিভিন্ন জেলার জেলা প্রশাসককে ভয় দেখানোর জন্য এ ধরনের হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্য করতে চাননি পুলিশসহ গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর কোনো কর্মকর্তা।

Print Friendly, PDF & Email