রোহিঙ্গাদের গমনাগমন নিয়ন্ত্রণে ইসির নির্দেশ

 
 

ঢাকা, ২২ ডিসেম্বর।। কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নির্বাচনী এলাকায় গমনাগমন নিয়ন্ত্রণে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

তাদের যেন আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কোনো প্রার্থীর পক্ষে বা বিপক্ষে ব্যবহার করতে না পারে সেজন্য সতর্ক থাকতেও বলা হয়েছে।

ইসি সচিবালয়ের নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয় শাখার উপ সচিব মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নির্দেশনা দেয়া হয়।

নির্দেশনা সংক্রান্ত চিঠি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব, মহাপুলিশ পরিদর্শক, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার, কক্সবাজার, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার, চট্টগ্রাম রেঞ্জের উপ-মহাপুলিশ পরিদর্শক, কক্সবাজারের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক, চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, কক্সবাজার পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্টদের পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। রোহিঙ্গারা যাতে কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে অথবা কোনো দুষ্কৃতিকারী তাদেরকে ব্যবহার করতে না পারে।

সেজন্য বিশেষ দৃষ্টি রাখা প্রয়োজন এ লক্ষ্যে কোনো রোহিঙ্গা যেন ২৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৭টা থেকে ৩১ ডিসেম্বর সকাল ৮টা পর্যন্ত ক্যাম্পের চৌহদ্দি থেকে বের হতে না পারে অথবা অন্যত্র গমন করতে না পারে, সে বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য নিবাচন কমিশন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

এক্ষেত্রে ক্যাম্পের বাইরে রোহিঙ্গাদের চলাফেরায় নিয়ন্ত্রণ আরোপের পাশাপাশি এনজিওকর্মীদের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করা হলেও খাদ্য, ত্রাণ বা জরুরি স্বাস্থ্য সেবার বিষয়গুলোকে নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখতে বলা হয়েছে।

রোহিঙ্গাদের ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে এবং ত্রাণ ব্যবস্থাপনার জন্য গতবছরই তাদের বায়োমেট্রিক নিবন্ধনের কাজ শুরু করে বাংলাদেশ সরকার। ক্যাম্পে থাকা শরণার্থীদের নিবন্ধনও কার্ডও দেয়া হয়।

কিন্তু তারপরও বিভিন্ন সময়ে রোহিঙ্গাদের ভোটার তালিকায় ঢুকে পড়ার তথ্য বেরিয়ে এসেছে নির্বাচন কমিশনের তদন্তে। বাংলাদেশের পাসপোর্ট নিয়ে রোহিঙ্গাদের বিদেশে চলে যাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে।

Print Friendly, PDF & Email