ঢাকায় বাসচাপায় সৈয়দপুরের শ্রমিক নিহত, বিক্ষোভ-ভাংচুর

 
 

ঢাকা, ১ জানুয়ারী।। রাজধানীর মালিবাগে সড়কে বাসাচাপায় দুইজন নারী গার্মেন্ট শ্রমিক নিহত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় সড়কে নেমে ব্যাপক ভাংচুর চালিয়েছেন তাদের সহকর্মীরা।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে মালিবাগ রেলগেট থেকে আবুল হোটেলের মাঝামাঝি জায়গায়  ‘সুপ্রভাত’ পরিবহনের একটি বাসের চাপায় ওই দুই নারী নিহত হন বলে রামপুরা থানার ওসি এনামুল হক জানান।

দুর্ঘটনায় তাদের মৃত্যুর খবর শুনে গার্মেন্ট শ্রমিকরা মালিবাগের আবুল হোটেলের সামনে রাস্তা অবরোধ করেন।

আশপাশের কয়েকটি গার্মেন্টের কয়েকশ শ্রমিক রাস্তায় নেমে মালিবাগ থেকে রামপুরা অভিমুখী সড়কে অর্ধশতাধিক গাড়ি ভাংচুর করেছেন।

বিকাল পৌনে ৫টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে তিনি জানান, মালিবাগ থেকে রামপুরার দিকে সড়কে একের পর এক ভাঙা গাড়ি পড়ে আছে। আর কয়েক কিলোমিটারজুড়ে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন শ্রমিকরা।

এদিকে দুই শ্রমিককে চাপা দেওয়া বাসটি জব্দ এবং তার চালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে ওসি এনামুল জানিয়েছেন।

নিহত নাহিদ পারভীন পলি (১৯) ও মীম (১৩) মালিবাগের পদ্মা সিলেমা হলের বিপরীতে এমএইচ গার্মেন্ট কারখানায় কাজ করতেন।

পলির গ্রামের বাড়ি নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলায়, মীমের বাড়ি বগুড়ার গাবতলী উপজেলায়। মগবাজারের পূর্ব নয়াটোলায় একটি রুম ভাড়া নিয়ে থাকতেন তারা।

সুমি নামে তাদের এক সহকর্মী জানান, পলি ও মীম দুপুরের খাবার খেতে কারখানা থেকে বাসায় যাচ্ছিলেন। রাস্তা পার হওয়ার সময় সদরঘাট থেকে গাজীপুরগামী একটি বাসের নিচে চাপা পড়েন তারা।

দুর্ঘটনাস্থলেই মীমের মৃত্যু হয়। সেখানে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্ট শুভ কুমার দে গুরুতর আহত অবস্থায় পলিকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

Print Friendly, PDF & Email

 
 
 
 
 
 
 
 

error: Content is protected !!