স্বামীকে হত্যার পর ৬ টুকরো করলো স্ত্রী!

 
 

গাজীপুর, ২৬ জানুয়ারী।। গাজীপুরের শ্রীপুরে রফিকুল ইসলাম (৩০) নামে এক ব্যক্তিকে হত্যার পর দুই হাত, দুই পা এবং মাথা বিচ্ছিন্ন বস্তাবন্দী করে দেহ বাঁশঝাড়ে ফেলে দিল স্ত্রী। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী জেবুন নেছাকে (২৭) আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শ্রীপুর পৌরসভার গড়গড়িয়া মাস্টারবাড়ী গিলারচালা এলাকার মেঘনা কম্পোজিট কারখানার সীমানা প্রাচীরের সাথে একটি বাঁশঝাড়ে থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত রফিকুল ইসলাম ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর উপজেলার উলামাকান্দা গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে। তিনি গড়গড়িয়া মাস্টারবাড়ী এলাকার আতিকুল ইসলাম ভূট্টুর বাড়িতে ভাড়া থেকে স্থানীয় হাউ আর ইউ পোশাক কারখানায় কাজ করতেন।

নিহতের স্ত্রী জেবুন নেছা একই উপজেলার উলমাকন্দি গ্রামের চাঁন মিয়ার মেয়ে।

শ্রীপুর থানার এসআই মো. আমিনুল বাহার জানান, সকালে গিলারচালা এলাকায় মেঘনা কম্পোজিট কারখানার সীমানা প্রাচীরের বাইরে একটি বাঁশঝাড়ে রক্তমাখা বস্তাপড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুই হাত, দুই পা এবং মাথা বিচ্ছিন্ন মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে নিহতের বাড়ির ময়লার ড্রাম থেকে দুই হাত, দুই পা এবং মাথা উদ্ধার করা হয়।

এসআই জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শ্রীপুর থানার ওসি মো. জাবেদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী জেবুন নেছাকে আটক করা হয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

Print Friendly, PDF & Email