ভেনেজুয়েলায় আগাম নির্বাচনের দাবি নাকচ

 
 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। ভেনেজুয়েলায় আগাম নির্বাচনের সম্ভাবনা নাকচ করেছেন প্রেসিডেন্ট নিকোলা মাদুরো। সবশেষ নির্বাচনে ক্ষমতাসীনদের জয় আইনসম্মত দাবি তার। রুশ গণমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে, জাতীয় ঐক্যের স্বার্থে বিরোধী দলের সঙ্গে আলোচনার তাগিদ দেন মাদুরো। এদিকে, বিরোধী নেতা হুয়ান গুয়াইদোকে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থন দিলেও, মাদুরোর পক্ষেই থাকছে রাশিয়া।

সাধারণ নির্বাচন ২০২৫ সালেই হচ্ছে; তবে বিশেষ প্রয়োজনে পার্লামেন্ট নির্বাচনের সময় এগিয়ে আনার ইঙ্গিত দিয়েছেন ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলা মাদুরো। সেনাবাহিনী সরকারের অনুগত আছে দাবি করে বুধবার, ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের দায় যুক্তরাষ্ট্রের ওপর চাপিয়েছেন তিনি।

ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলা মাদুরো বলেন, আমরা শান্তিতে বিশ্বাসী। আমি যুক্তরাষ্ট্রবাসীর সঙ্গে শ্রদ্ধা ও পারস্পরিক সহায়তার সম্পর্ক গড়তে আগ্রহী। কেননা দেশটির সব মানুষ ডনাল্ড ট্রাম্পের মতো না। আমাদের দেশ সঠিক পথেই আছে। সবার সঙ্গে সমঝোতার মাধ্যমেই আমরা ইতিহাস গড়তে চাই।

এর আগে ভিডিও বার্তায়, ভেনেজুয়েলার তেলের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নজর পড়েছে বলে অভিযোগ করেন মাদুরো। তাই, দেশে ইরাক বা লিবিয়ার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি না করতে মার্কিন নাগরিকদের প্রতি আহ্বান তার। সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টা করলে লাতিন আমেরিকায় আরেকটি ভিয়েতনাম সৃষ্টি হবে বলেও, সতর্ক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রকে।

অবশ্য, বিরোধী নেতা হুয়ান গুয়াইদোর প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখার কথা আবারো জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ। গুয়াইদোর সঙ্গে ফোনালাপের পর, ভেনেজুয়েলাকে মাদুরোর হাত থেকে মুক্ত করার সময় এসেছে বলে টুইট করেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। তিনি সমর্থন পাচ্ছেন নিজ দল রিপাবলিকান পার্টি থেকেও।

যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান নেতা টেড ক্রুজ বলেন, মার্কিন কংগ্রেসসহ গোটা বিশ্ব ভেনেজুয়েলার দিকে তাকিয়ে। দেশটিকে স্বৈরশাসকের হাত থেকে উদ্ধার করার এখনই উপযুক্ত সময়। সংবিধানের ওপর আস্থা রেখে সেদেশের সেনাবাহিনীরও উচিৎ জনগণের আন্দোলনকে সমর্থন করা।

এদিকে, ভেনেজুয়েলার বড় শহরগুলোতে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

তবে ভেনেজুয়ালাতে সিরিয়ার মতো সংকটপূর্ণ পরিস্থিতি কোনভাবেই সৃষ্টি হতে দেয়া যাবে না বলে আবারও সতর্ক করেছে রাশিয়া।

Print Friendly, PDF & Email