রোহিঙ্গাদের জন্য আর সীমান্ত খুলবে না বাংলাদেশ

 
 

সিসি ডেস্ক, ৯ ফেব্রুয়ারী।। কোনো অবস্থাতেই মিয়ানমারের অধিবাসীদের জন্য বাংলাদেশের সীমান্ত খুলবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মন্ত্রণালয়ে জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশনের বিশেষ দূত অ্যাঞ্জোলিনা জোলির সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে শুধু সহানুভূতি না দেখিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক সীমিত করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইন রাজ্যে হামলার শিকার হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান।

এবার দেশটির উত্তর রাখাইন রাজ্য থেকে বৌদ্ধ ও ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠীর সদস্যদের বাংলাদেশে পাঠানোর চেষ্টা চলছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাফ জানিয়ে দিলেন, এবার কোনোভাবেই সীমান্ত খুলবে না বাংলাদেশ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের বর্ডার সিল করে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের যখন পাঠায় কোনো কন্ডিশন দিয়ে পাঠায় না, আর নেয়ার সময় বিভিন্ন ধরনের কন্ডিশন দিতে থাকে। তিনি বলেন, মিয়ানমার থেকে আসা প্রতিটি রোহিঙ্গাকে ফিরে যেতে হবে।’

এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশে সফররত হলিউড অভিনেত্রী ও ইউএনএইচসিআরের বিশেষ দূত অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। বৈঠকে এ বছর রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের জন্য বরাদ্দকৃত ৯৫২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দ্রুত ছাড় দেয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী। পরামর্শ দেন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়ানোর।

মন্ত্রী বলেন, ৯৫২ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ৪০ শতাংশও এখনো আসেনি। এ বিষয়ে সোচ্চার হতে জোলিকে আহবান জানান তিনি।

বাংলাদেশের ভূমিকার ব্যাপক প্রশংসা করে অস্কারজয়ী জোলি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে পুরো বিশ্বকে এক করে পাশে থাকতে কাজ করবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

Print Friendly, PDF & Email