• শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০১:০৯ পূর্বাহ্ন |

বাঁচতে চায় শাহজাদা

সিসি নিউজ, ১৯ মার্চ।। স্টেশনারী পণ‌্য বাজারজাতকরণ একটি কোম্পানীতে চাকুরী করে পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে ব‌্যস্ত ছিল শাহজাদা হোসেন। কিন্তু চলতি বছর জানুয়ারী মাসের মাঝামাঝি সময়ে শারীরিকভাবে অসুস্থ‌্য হয়ে পড়ে সে। চিকিৎসকের শরণাপন্ন হয়ে শারীরিক পরীক্ষা নিরীক্ষায় পরিবারের লোকজন জানতে পারে শাহজাদা লিভার ক‌্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছে।

শাহজাদার পরিবারের সদস‌্যরা তাকে নিয়ে ছুটে যায় স‌্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের লিভার বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মেডিসিন ও লিভার বিশেষজ্ঞ ডাঃ মো. ফজল করিমের কাছে। তিনি কিছুদিন চিকিৎসা সেবা দিয়ে শাহজাদার উন্নত চিকিৎসার জন‌্য ভারতের হায়দ্রাবাদের এআইজি হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেন।

পরিবারের লোকজন ধার-দেনা করে শাহজাদাকে ভারতের ওই হাসপাতালের হেপাটোলজি ও লিভার ট্রান্সপ্লান্টেশন বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. প্রমোদ কুমারের তত্ত্বাবধানে ভর্তি করান। দ্রুত অপারেশনের প্রয়োজন এবং এজন‌্য বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ইতিপূর্বে ৪ লাখ টাকা ব‌্যয় হয়ে যায়। বর্তমানে শাহজাদাকে দুই সপ্তাহ পরপর ভারতীয় মূল‌্য ১ লাখ ৮০ হাজার রুপির (একটির মূল‌্য)  ৮টি ইনজেকশন শরীরে প্রয়োগ করতে হচ্ছে।

নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর শহরের কয়ানিজপাড়া কবরস্থান সংলগ্ন মৃত আবিদ হোসেনের পুত্র শাহজাদাকে বাঁচাতে তার অপারেশনের প্রয়োজন। আর এজন‌্য প্রয়োজন প্রায় ৪০ লাখ টাকা। সহায়-সম্বল বিক্রি করে কিছু অর্থ যোগান হলেও বিরাট অঙ্কের টাকা এখনও সংগ্রহ হয়নি। ফলে উপায়হীণ শাহজাদা সমাজের সর্বস্তরের মানুষের কাছে সাহায‌্যের আকুল আবেদন করেছে।

তার সুচিকিৎসার জন‌্য সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম গোলাম কিবরিয়া ও উপজেলা মাধ‌্যমিক শিক্ষা অফিসার রেহেনা ইয়াসমীন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সাধ‌্যমত আর্থিক সাহায‌্য প্রদানের জন‌্য সুপারিশ করেছেন। সাহায‌্য প্রদানে ইচ্ছুক ব‌্যাক্তি, সামাজিক সংগঠন, বিভিন্নস্তরের প্রতিষ্ঠান ০১৭৫৬০৯০১৭৭ নম্বরে যোগাযোগ করার জন‌্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ