• সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০২:৩৯ পূর্বাহ্ন |

মালিকের নির্দেশেই সুপ্রভাতের বাসটি চালাচ্ছিল ‘কন্ডাক্টর’

ঢাকা, ২৮ মার্চ।। ঢাকার প্রগতি সরণিতে সুপ্রভাত পরিবহনের যে বাসের চাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিউপি) ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরীর মৃত্যু হয়, সেটি চালাচ্ছিলেন ওই বাসের ‘কন্ডাকটর’। ‘কন্ডাক্টর’ বাস মালিকের নির্দেশ পালানোর সময় এই শিক্ষার্থী বাসচাপা পড়েন।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আব্দুল বাতেন।

এদিকে বাসটির চালক সিরাজুল ইসলামকে (২৪) ঘটনার দিনই গ্রেফতার করে পুলিশ। আবরারের বাবা আরিফ আহমেদ চৌধুরীর করা মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিরাজুলকে সাত দিনের রিমান্ডে পাঠায় আদালত।

আব্দুল বাতেন জানান, সুপ্রভাত বাসটি শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীকে চাপা দেয়ার সময় বাসটি চালাচ্ছিল কন্ডাক্টর ইয়াসিন আরাফত। মালিকের নির্দেশে সে বাসটি নিয়ে পালানোর চেষ্টাকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) রাতে ইয়াসিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার (২৭ মার্চ) সকালে গ্রেফতার করা হয় বাসটির হেলপার ইব্রাহিমকেও।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার বলেন, বাসটির চালক ও কন্ডাক্টরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, ১৯ মার্চ ভোর ৫টা ৪৫ মিনিটে ভিক্টোরিয়া পার্ক এলাকা থেকে সুপ্রভাত বাসটি ছেড়ে আসে। তখন চালক ছিলেন সিরাজুল ইসলাম। বাসটি গুলশানের শাহজাদপুর বাঁশতলা এলাকা অতিক্রম করার সময় মিরপুর আইডিয়াল গার্লস ল্যাবরেটরিজ কলেজের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী সিনতিয়া সুলতানা মুক্তাকে চাপা দেয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। তখন পরিবহনের যাত্রীরা চালক সিরাজুলকে ট্রাফিক পুলিশে সোপর্দ করেন। ঘটনাস্থলের কিছু দূরে বাসটি রাখা হয়। এ সময় কন্ডাক্টর ইয়াসিন আরাফাত বাসের মালিকের কাছে ফোন দিয়ে জানায়, বাসটি এখানে থাকলে জনগণ পোড়াতে বা ভাঙচুর করতে পারে। তখন মালিক আরাফতকে দ্রুত বাসটি সেখান থেকে নিয়ে সরে পড়তে বলে। চালকের পরিবর্তে কন্ডাক্টর বাসটি নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় বিইউপির ছাত্র আবরার বাসটির নিচে চাপা পড়েন।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছিল, বাসচালকই আবরারকে চাপা দেয়। কিন্তু চালককে গ্রেফতারের পর ৭ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জানা যায়, তখন বাস চালাচ্ছিল কন্ডাক্টর ইয়াসিন আরাফত। ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকা সত্ত্বেও মালিক ননী গোপাল সরকারের নির্দেশে কন্ডাক্টর বাস চালাতে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গোয়েন্দা পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো বলেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ডিবি (উত্তর) ক্যান্টনমেন্ট জোনাল টিম চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি থানার একটি ইটের ভাটা থেকে কন্ডাক্টর ইয়াসিন আরাফতকে গ্রেফতার করে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার (২৭ মার্চ) সকাল সাড়ে ৬টায় রাজধানীর মধ্যবাড্ডা এলাকা থেকে বাসটির হেলপার ইব্রাহিমকে গ্রেফতার করা হয়।

আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় দণ্ডবিধির ৩০৪ ধারায় মামলা হয়েছে জানিয়ে অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, এ ঘটনায় এক মাসের মধ্যে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হবে। দুর্ঘটনার পর সেদিনই সুপ্রভাত পরিবহনের ওই বাসের রুট পারমিট বাতিল করে বিআরটিএ। পরে ঢাকা মহানগরীতে সুপ্রভাতের সব বাস ও মিনিবাস চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

প্রসঙ্গত, রাজধানীর নর্দ্দা এলাকায় মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বাসচাপায় নিহত হন আবরার আহমেদ চৌধুরী। এই ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেন। বাস সুপ্রভাত পরিবহনের রুট পারমিট বাতিল, ঘাতক চালকের ফাঁসির দাবিসহ আট দফা দাবিতে বেশ কয়েটি সড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ