• সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৫:৫০ পূর্বাহ্ন |

সৈয়দপুরে সোনালী সঞ্চয় সমিতিতে ডাকাতির মূলহোতা গ্রেফতার

সিসি নিউজ, ১৩ জুন।। সৈয়দপুর শহরের সোনালী সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতিতে ১৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকা ডাকাতির ঘটনার মূল হোতা মাসুদ রানাকে (২৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার রাতে বগুড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় এবং তাঁর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতে দিনাজপুরের বিরল থেকে ডাকাতির ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সৈয়দপুর থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) আতাউর রহমান জানান, সোনালী সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতিতে ডাকাতির ঘটনার মূল হোতা মাসুদ রানাকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পালের নেতৃত্বে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে বগুড়া শহরের শহীদ চান্দু স্টেডিয়াম সংলগ্ন তাঁর খালার বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। সে ঠাকুরগাঁও জেলা সদরের ভূল্লীর বাজারের কুমারপুর গ্রামের আনিছুর রহমান রহমানের পুত্র এবং ওই মামলার পূর্বে গ্রেফতার হওয়া অফিসের ফিল্ড সুপারভাইজার আলমগীর হোসেনের শ‌্যালক। পরে রাতেই তাঁর দেয়া স্বীকারোক্তিতে দিনাজপুরের বিরল উপজেলার ধুকুরঝাড়ির গোবিন্দপুরে ফুফু আইমন বিবির বাড়িতে বিশেষ কায়দায় কাঁসার হাঁড়িতে রাখা ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

সৈয়দপুর থানার ওসি তদন্ত আবুল হাসনাত খান সিসি নিউজকে জানান, গত ২৮ এপ্রিল সন্ধ‌্যায় সৈয়দপুর শহরের বিচালীহাটিস্থ সোনালী সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতিতে ডাকাতি ঘটনার মূল হোতা মাসুদ রানা। অফিসের সুপারভাইজার আলমগীর হোসেনের পরিকল্পনায় তাঁর শ‌্যালক মাসুদ রানা সহ মোট ৫জন ওই ডাকাতিতে অংশ নেয়। আটক মাসুদ প্রাথমিক ভাবে ৮ লাখ ৪৪ হাজার টাকা ডাকাতি করেছে বলে পুলিশকে জানায়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সৈয়দপুর সার্কেল) অশোক কুমার পাল জানান, সিসি ফুটেজের ছায়া ছবি দেখে আসামীকে সনাক্ত করা হয়েছে। আত্মগোপনে থাকা বাকী আসামীদের গ্রেফতারে জোর চেষ্টা চলছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মামলায় বাদী ১৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকা উল্লেখ‌্য করলেও আসামী মাসুদ ৮ লাখ ৪৪ হাজার টাকা ডাকাতির কথা স্বীকার করেছে।

উল্লেখ‌্য যে, চলতি বছরের ২৮ এপ্রিল রবিবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে ডাকাত সদস্যরা পর্যায়ক্রমে সমিতির অফিসে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাত সদস‌্যরা আগ্নেয় অস্ত্র ঠেকিয়ে অফিসের ম্যানেজার জাকারিয়া সরকার এবং দুই সহকারী ফিল্ড সুপারভাইজার আলমগীর হোসেন ও ইলিয়াছ হোসেনকে জিম্মি করে সমিতির ১৭ লাখ ৪৪ হাজার ৮০৯ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় পরদিন সোমবার(২৯ এপ্রিল) সমিতির ম্যানেজার জাকারিয়া সরকার নিজে বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ

error: Content is protected !!