তিস্তার পানি প্রবাহের ২০ বছরের রেকর্ড ছাড়িয়েছে

 
 

সিসি নিউজ, ১৩ জুলাই ।। উজানের ঢল আর ভারী বর্ষনে নীলফামারীতে তিস্তার পানি এখনও বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে। আজ শনিবার সকাল ৬টায় ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপদসীমার ৫০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছিল। যা বিগত ২০ বছরের রেকর্ড ছাড়িয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ডালিয়া পানি উন্নয়ণ বোর্ডের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী হাফিজুল হক।

দুপুর ১২টায় নদীর পানি প্রবাহ ২ সেন্টিমিটার কমে ৪৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এরফলে নীরফামারী ডিমলা ও জলঢাকার ৮টি ইউনিয়নের প্রায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। গতরাতে পানি বৃদ্দি পাওয়ায় নতুন করে আরো কয়েকটি গ্রামে পানি প্রবেশ করেছে। পানিবন্দি চরাঞ্চলের মানুষ তাদের গরু-ছাগলসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে উঁচু স্থানে আশ্রয় নিয়েছে।

পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার দুপুরে তিস্তা ব‌্যারেজ পরিদর্শণ করেন। এ সময় তিনি বিভিন্ন চরের পানিবন্দি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন।
জেলা প্রশাসন এ পর্যন্ত ১৫০ মেট্রিক টন চাল, নগত ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও শুকনো খাবার পানিবন্দি মানুষদের মাঝে বিতরণ করছে। এ ছাড়া চরাঞ্চলের স্কুলগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। প্রস্তুত রয়েছে ফায়ার সার্ভিস রিসকিউ বাহিনী, চিকিৎসক দল সহ অন্যান্য বাহিনী।
জেলার জলঢাকায় তিস্তা নদী ও বুড়ি তিস্তা নদীর মিলনস্থলের ডান তীরে ১৩ কিলোমিটার বাঁধের বান পাড়া নামক স্থানে প্রায় ১২০ মিটার এলাকায় ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ওই ভাঙ্গন মেরামতে কাজ চলছে।
এদিকে পানি নিয়ন্ত্রনের জন্য তিস্তা ব্যারেজের সবকটি (৪৪) গেইট খুলে দিয়েছে ব্যারেজ কতৃপক্ষ।

Print Friendly, PDF & Email

 
 
 
 
 
 
 
 

error: Content is protected !!