• মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:২৪ অপরাহ্ন |

ফলোআপ: রেলপথের লেভেলক্রসিংয়ে লাগানো হলো ব্যারিয়ার

সিসি নিউজ, ২৫ জুলাই ।। অবশেষে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সৈয়দপুর- চিলাহাটি রেলপথের অরক্ষিত লেভিলক্রসিংয়ে র‌্যারিয়ার (রেলগেট) লাগানোর কাজ শুরু হয়েছে। গত মঙ্গলবার নীলফামারীর সৈয়দপুর উপেজলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের পোড়াহাট এলাকায় রেলওয়ের ই/১২৮ নম্বর লেভেলক্রসিংয়ে প্রতিবন্ধক (ব্যারিয়ার) স্থাপন করা হয়। পাবর্তীপুর রেলওয়ের উর্ধ্বতন উপ-সহকারি প্রকৌশলীর (কার্য ) কার্যালয়ের পাঁচজন শ্রমিক-কর্মচারী গেল দুই দিন ধরে ওই ব্যারিয়ার (রেলগেট) স্থাপন করেন।
প্রসঙ্গত ,পশ্চিমাঞ্চীয় রেলওয়ের সৈয়দপুরের ৩৯৩/০ মাইলপোষ্ট থেকে চিলাহাটির ৪৪৭ মাইপোষ্ট পর্যন্ত দূরত্ব ৫৪ কিলোমিটার। এই রেলপথে বৈধ লেভেলক্রসিং রয়েছে ৩৩টি। এর মধ্যে বৈধ লেভেলক্রসিং ৩১টি এবং অবৈধ ৩টি। আর বৈধ লেভেলক্রসিংগুলোর মধ্যে মাত্র ১২টি লেভেলক্রসিংয়ে রয়েছে গেটম্যান। আর গেটম্যান থাকা উল্লেখিত সংখ্যক লেভেলক্রসিংয়ে বেশিরভাগরই আবার ব্যারিয়ার (প্রতিবন্ধক) নেই। এ সব লেভেলক্রসিং বাঁশ দিয়ে আটকিয়ে যানবাহন ট্রেন পার করা হয়। এমন একটি লেভেলক্রসিং হচ্ছে সৈয়দপুর- চিলাহাটি রেলপথের ই/১২৮ নম্বর লেভেলক্রসিংটি । নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের পোড়াহাট এলাকায় ওই লেভেলক্রসিংটির অবস্থান। এই লেভেলক্রসিং গত ২০১৫ সালের ১৪ আগস্ট রাতে এক বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটে। এতে সৈয়দপুর থানার ৪ জন কনস্টেবল নিহত হন। এ সব অরক্ষিত লেভেলক্রসিংয়ে প্রায় সময় ছোট বড় দূর্ঘটনা ঘটছে। রেলওয়ের ই/১২৮ নম্বর লেভেলক্রসিংয়ের মতো সৈয়দপুর-চিলাহাটি রেলপথে বৈধ ২১টি লেভেলক্রসিং অরক্ষিত অবস্থায় রয়েছে।
এ নিয়ে গত ২২ জুলাই সিসি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম সহ স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিকে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। আর এতে টনক নড়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের। গত মঙ্গলবার তড়িঘড়ি করে ওই লেভেলক্রসিংয়ে ব‌্যারিয়ার বসানো হয়েছে।
রেলওয়ে একটি সূত্রে জানা গেছে, পশ্চিম রেলওয়ের লেভেলক্রসিংয়ের গেট নির্মাণ ও গেটম্যান নিয়োগ করা হয় একটি প্রকল্পের মাধ্যমে। যদিও ওই প্রকল্পের মেয়াদ ইতোমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। সে হিসেবে লেভেলক্রসিংয়ের ব্যারিয়ার লাগানো কথা প্রকল্পের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের লোকজনকে। কিন্তু গত মঙ্গলবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পাবর্তীপুর আইডাব্লু অফিসের পাঁচ শ্রমিক সেখানে ব্যারিয়ার বসানোর কাজ করছেন। সেখানে কথা হয় গেটমিস্ত্রি মো. আবুল কালাম আজাদ ও হেড ট্রলিম্যান মো. মোখলেছুর রহমানের সঙ্গে এ প্রতিনিধির। এ সময় তারা জানান, তারা পাবর্তীপুর আইডাব্লু স্টাফ।
এ নিয়ে কথা হলে পার্বতীপুর রেলওয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত উর্ধ্বতন উপ-সহকারি প্রকৌশলী (ওয়ার্কস) মো. তহিদুল ইসলাম বলেন, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজনের সঙ্গে তাঁর দপ্তরে অভিজ্ঞ লোকজনও ব্যারিয়ার লাগানোর কাজে সহযোগিতা করছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ